Rise in Drug Crime and its Treatment Under Law | Attorney Miya Griggsঅবশেষে টিএসআর এসিস্টেন্ট কমান্ডেন্ট তাপস দেবের বিরুদ্ধে দায়ের করা দুর্নীতির মামলার তদন্তের দায়িত্ব নিলো ক্রাইম ব্রাঞ্চ।মঙ্গলবার পশ্চিম জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে এই মামলার ফাইল তুলে দেওয়া হয়েছে ক্রাইম ব্রাঞ্চের হাতে। ক্রাইম ব্রাঞ্চের ডিএসপি অজয় কুমার দাস এই মামলার তদন্ত করবেন। জেলা পুলিশ মামলার সমস্ত নথিপত্র তুলে দেয় অনুসন্ধানকারী আধিকারিকদের কাছে।বুধবার মামলার তদন্তকারী অফিসার ডিএসপি অজয় কুমার দাস যাবেন ভিজিল্যান্স-এ।তিনি ভিজিল্যান্স’র তদন্তকারী অফিসার শিবু দেবের কাছ থেকেও মামলার নথি সংগ্রহ করবেন।এরপরই শুরু করবেন মামলার তদন্ত প্রক্রিয়া।ক্রাইম ব্রাঞ্চ সূত্রে এখবর জানা যায়।
গত ২১মে ভিজিল্যান্স’র তদন্তকারী অফিসার শিবু দেব শহরের এন সি সি থানায় TSR-এর এসিস্টেন্ট কমান্ডেন্ট তাপস দেবের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেন। ভিজিল্যান্স’র দাবি,
তাপস দেবের ব্যাংক একাউন্টে ১কোটি ২লক্ষ ৪৩ হাজার ৪২৭ টাকা পাওয়া যায়। এই টাকার কোনো উৎস খোঁজে পাওয়া যায়নি।মূলত এই টাকাকে কালো ধন বলেই সনাক্ত করেছে ভিজিল্যান্স। এই সংক্রান্ত সমস্ত তথ্যও ভিজিল্যান্স সংগ্রহ করেছে। এই টাকার একাংশ তাপস দেবের স্ত্রীর ব্যাংক একাউন্টেও রাখা হয়েছে। ভিজিল্যান্স তাপস দেবের বিরুদ্ধে প্রিভেনশন এন্ড করাপশন এক্টসে মামলা রুজু করে। তাপস দেব এখনো চাকরিতে রয়েছেন বহাল তবিয়তে। তবে আগামী কিছু দিনের মধ্যে তাপস দেব চাকরি থেকে বরখাস্ত হতে পারেন বলে রাজ্য পুলিশের সদর কার্যালয় থেকে জানা গেছে। প্রসঙ্গত ২০১৯ সালেও তিনি গাঁজা কাণ্ডে জড়িয়ে গিয়েছিলেন।হয়েছিলেন চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত| তখন তাপস দেব ছিলেন তেলিয়ামুড়া মহকুমা পুলিশ আধিকারিক।এবার ক্রাইম ব্রাঞ্চ তদন্ত শেষ করে আদালতে রুপালি না সোনালী চার্জশিট জমা করে সেটাই এখন দেখার বিষয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.