Murder News: Latest News and Updates on Murder at News18ক্রমশ তপ্ত হয়ে উঠছে পাহাড়।রাজনৈতিক সন্ত্রাসে বারুদ ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে রাজ্যে পাহাড়ি এলাকায়।তার প্রমান প্রতিদিন মিলছে।সর্বশেষ জমপুই জলাতে আক্রান্ত হলেন আইপিএফটি সুপ্রিমো এন সি দেববর্মা।এরপর আইপিএফটির মান্দাইয়ের বিধায়ক বীরেন্দ্র দেববর্মাও আক্রান্ত হয়েছেন।
পাহাড়ে আইপিএফটি’র সাধারণ কর্মী সমর্থকরা রোজ নিয়ম করে কেলানি খাচ্ছে তিপ্রার সমর্থকদের।স্বাভাবিক ভাবেই পাহাড়ের রাজনৈতিক পরিবেশ প্রতিনিয়ত অবনতি হচ্ছে।তিপ্রার সুপ্রিমো প্রদ্যুত কিশোর দেববর্মন বারবার বলছেন,তিপ্রার যে সমস্ত কর্মী সমর্থকরা হামলা হজ্জুতি করবে তাদের দল থেকে বের করে দেওয়া হবে।এরপরও দলের সুপ্রিমোর কথা কর্ণপাত করছে না কর্মী সমর্থকরা।শেষ পর্যন্ত রাজ্যের রাজস্ব মন্ত্রী এন সি দেববর্মার সঙ্গে রাজনৈতিক শালীনতাও হারিয়ে ফেলে তিপ্রার কর্মী সমর্থকরা।
জমপুই জলা এনসি কাণ্ডের পর সরব হয় আইপিএফটি।তিন দফা দাবির ভিত্তিতে তারা আগামী ২২মে ২৪ ঘন্টার বনধের ডাক দিয়েছে আইপিএফটি নেতৃত্ব।
তাদের প্রথম দাবি, এনসি দেববার্মার উপর আক্রমণকারীদের গ্রেপ্তার করে তাদের উপযুক্ত শাস্তির দাবি।
দ্বিতীয়ত,রাজ্যের বিভিন্ন জায়গাতে তিপ্রার সন্ত্রাসের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ প্রদান।এবং অভিযুক্তদের গ্রেফতার

তৃতীয়ত, মনোনীত ভিলিজ কমিটি গঠনের এডিসির বর্তমান প্রশাসনের জারি করা নির্দেশ অসাংবিধানিক।এটা রাজ্যর প্রচলিত আইন বিরোধী।এই নির্দেশ অতি সত্ত্বর প্রত্যাহারের দাবি।

আইপিএফটির ডাকা এডিসি’র এই পাহাড় বনধ কেন্দ্র করে সংঘর্ষের আশঙ্কাও প্রবল হচ্ছে।কেন না,এডিসির বর্তমান প্রশাসন এই বনধ মেনে নেবে না।তারা বনধের বিপক্ষে সওয়াল করবে। এটাই স্বাভাবিক ও প্রত্যাশিত।
রাজনীতিকরা বলছেন,তিপ্রার কর্মী সমর্থকরা যদি দ্রুত পাহাড়ে সন্ত্রাস বন্ধ না করে,তাহলে ফের মঞ্চ পাবে আইপিএফটি।সঙ্গে বিজেপি।কেননা পাহাড়ে বর্তমানের যা চলছে তা কোনো ভাবেই মেনে নিতে পারছে না জনজাতি অংশের সুশীল সমাজ।খেটে খাওয়া সাধারন মানুষও রাজনীতির রংচা কাগজে থাকতে চায় না।হামলা, হজ্জুতি,সংঘর্ষ তারা কিছুই চায় নি। নিরুদ্রপে সাধারণ জীবন যাপনই করতে চাইছে পাহাড়ের গিরিবাসীরা।
পুলিশের আশঙ্কা, আইপিএফ’র বনধ কেন্দ্র করে রক্ত ঝড়তে পারে পাহাড়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে হিমশিম খেতে হবে পুলিশকে।তাই আগাম প্রস্তুত নিয়ে রেখেছে পুলিশ প্রশাসন।কিন্তু পুলিশ কি পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবে? তিপ্রাও চাইবে না আইপিএফ’র বনধ সফল হোক।তিপ্রা এডিসির মসনদে বসার পর,বিরোধীদের ডাকা এটাই প্রথম বনধ।এই কারণেই বনধ বানচাল করতে সর্ব শক্তি নিয়ে ঝাঁপাবে তিপ্রামথা ও এডিসি প্রশাসন

Leave a Reply

Your email address will not be published.