অমরপুর ডেস্ক,২মার্চ।।
“ডুম্বুর জলাশয় পর্যটনের মানচিত্রে এক বিশেষ স্থান অধিকার করেছে। ডুম্বুর জলাশয়ে দু’টি হাউজ বোট চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই হাউজ বোটগুলি চালু হলে নারকেলকুঞ্জ এবং ডম্বুর জলাশয়ের গুরুত্ব আরও বেড়ে যাবে।”গন্ডাছড়া মহকুমার ভগিরথ পাড়াতে রাইমা নদীর পাশে দু’দিনব্যাপী খুমপুই উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করে পর্যটনমন্ত্রী প্রণজিৎ সিংহরায় একথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, ভগিরথ শিবমন্দির প্রাঙ্গণকে আরও আকর্ষণীয় করার লক্ষ্যে পর্যটন দপ্তর বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করবে। থুমপুই উৎসবকে কেন্দ্র করে উদয়পুর, অমরপুর, জম্পুইজলা, তেলিয়ামুড়া ইত্যাদি স্থান থেকে শত শত পূর্ণার্থী এই ধর্মীয় পর্যটন কেন্দ্রে ভীড় করে থাকেন। এই পূর্ণার্থীদের যাতে কোন সমস্যা না হয় সেদিকে প্রশাসন বিশেষ ভাবে নজর রেখে চলেছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি জনজাতি কল্যাণ মন্ত্রী মেবার কুমার জমাতিয়া বলেন, রাজ্য সরকার জনজাতি সম্প্রদায়ের ভাষা, কৃষ্টি ও সংস্কৃতির বিকাশে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছে। সমগ্র রাজ্যেই পূর্ববর্তী সরকারের আমলে যেখানে মাত্র ৫টি একলব্য মডেল বিদ্যালয় স্থাপন করা হয়েছিল, বর্তমান সরকার মাত্র চার বছরে রাজ্যে ২০টি একলব্য মডেল বিদ্যালয় স্থাপন করেছে।এতে প্রায় ১০-১২ হাজার ছাত্রছাত্রী বিনামূল্যে পড়াশুনার সুযোগ পাচ্ছে। বিশেষ অতিথির ভাষণে সাংসদ রেবতী ত্রিপুরা বলেন, জনজাতিদের উন্নয়নে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকার বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে। এর সুফলও পাওয়া যাচ্ছে। বিগত চার বছরে ভগিরখের রাস্তাঘাট, পানীয়জল ও বিদ্যুৎ পরিষেবার যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। অনুষ্ঠানে এছাড়াও বিধায়ক ধনঞ্জয় ত্রিপুরা, এমডিসি ভূমিকানন্দ রিয়াৎ, ধলাই জেলার অতিরিক্ত জেলাশাসক অজিত শুক্লদাস বক্তব্য রাখেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.