তেলিয়ামুড়া ডেস্ক,২রা মে।।
বেপরোয়া লরির সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গিয়ে আঠারোমুড়া পাহাড়ের গভীর খাদে পতিত হলো যাত্রীবাহি বাস।ঘটনা সোমবার দুপুরে মুঙ্গিয়াকামী থানাধীন চাকমাঘাট বিশ্বকর্মা মন্দির সংলগ্ন এলাকায়। এই ঘটনায় বাসের চালক,সহ-চালক সহ মোট ১৫জন যাত্রী জখম হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ১৪ জনের চিকিৎসা চলছে তেলিয়ামুড়া হাসপাতালে। একজনের অবস্থা আশংকাজনক।তার নাম মনিরাম দেববর্মার(৫০)। তাকে জিবি হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। দুর্ঘটনার জন্য দায়ী থাকা বেপরোয়া লরিটি পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, এদিন দুপুরে কাঞ্চনপুর থেকে আগরতলার দিকে আসছিলো একটি যাত্রীবাহি বাস(টি আর ০১-এ-১৩৯৩)। বাসটি জাতীয় সড়কের আঠারোমুড়া পাহাড়ের চাকমাঘাটস্থিত বিশ্বকর্মা মন্দির সংলগ্ন এলাকায় আসতেই ঘটে বিপত্তি। তখন বিপরীত দিক থেকে আসছিলো দ্রুতগামী একটি লরি। আঠারোমুড়া বাক নেওয়ার সময় বাস ও লরি সামনা-সামনি চলে আসে। গাড়ি দুইটির মধ্যে সংঘর্ষের উপক্রম হয়। মুখোমুখি সংঘর্ষ এড়াতে গিয়েই বাসটিও নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে।এবং পতিত হয় আঠারোমুড়ার গভীর খাদে। বিকট শব্দ শুনে আশপাশ গ্রামের মানুষ বেরিয়ে আসে। শুরু হয় খাদে পতিত হওয়া বাস যাত্রীদের কান্নার রোল। এর ফাঁকেই ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় লরিটি।

স্থানীয় লোকজন জরুরী তলব করে পুলিশ ও দমকল বাহিনীকে। স্থানীয় মানুষের সহযোগিতায় পুলিশ-দমকল বাহিনী উধারকার্য শুরু করে। একে একে বাস যাত্রীদের উদ্ধার করে পাঠানো হয় তেলিয়ামুড়া হাসপাতালে। মনিরাম দেববর্মা নামে এক যাত্রীর শারীরিক অবস্থা অবনতি হওয়ায় কারণে তাকে পাঠানো হয়েছে জিবি হাসপাতালে। বাদবাকি যাত্রীদের চিকিৎসা চলছে তেলিয়ামুড়া হাসপাতালে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.