ডেস্ক রিপোর্টার,৩রা জুন।
রাজধানীর ৬-আগরতলা ও ৮-টাউন বড়দোয়ালিতে ক্রমশ উপভোটের পারদ চড়ছে। এই দুই কেন্দ্রে মূলত লড়াইয়ের বৃত্তে চলে এসেছে বিজেপি-কংগ্রেস। বিজেপি’র সঙ্গে পাল্লা দিয়ে দুই কেন্দ্রেই জোর প্রচার শুরু করেছে কংগ্রেস।শুক্রবার রাজধানী ৮-টাউন বড়দোয়ালি বিধানসভা কেন্দ্রে নির্বাচনী মিছিল করে কংগ্রেস। এখনো কংগ্রেস আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রার্থী ঘোষণা না করলেও আশীষ সাহাই হচ্ছে এই কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী।ইতিমধ্যে তিনি বাড়ি বাড়ি প্রচার শুরু করেছেন।. এদিন টাউন বড়দোয়ালি বিধানসভা কেন্দ্রের নাগেরজলা থেকে মিছিল শুরু করে কংগ্রেস।নেতৃত্বে ছিলেন খোদ আশীষ সাহা। মিছিলটি নাগেরজলা থেকে শহর দক্ষিণের ভট্টপুকুর, উন্নয়ন সংঘ, অরুন্ধতীনগর, মিলন সংঘ,এমবি টিলা, বড়দোয়ালি, পশ্চিম প্রতাপগড় এলাকায় মিছিলটি প্রদক্ষিণ করে।এই মিছিলে কংগ্রেস কর্মী-সমর্থকদের সংখ্যা ছিলো লক্ষ্যণীয়।

রাজপথে কংগ্রেসের মিছিল।

নির্বাচনী মিছিলে দাঁড়িয়ে আশীষ সাহা বলেন, তিনি বারবার এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হয়েছিলেন।তাও আবার কংগ্রেসের টিকিটে।তবে ব্যতিক্রম ছিলো ২০১৮ সালে।তখন তিনি বিজেপি’র টিকিটে জয়ী হয়েছিলেন। আশীষ সাহা বলেন, বিজেপি মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে।তাদেরকে আর বিশ্বাস করছে না মানুষ। উপ-ভোটে কংগ্রেসের পাশেই আছে ভোটাররা। এবং তিনি উপভোটে জয়ী হবেন বলে মনে করছেন।
এদিকে রাজধানীর আরেক হেভিওয়েট কেন্দ্র ৬-আগরতলা ।এই কেন্দ্রে কংগ্রেসের প্রার্থী হবেন সুদীপ রায় বর্মন। এখন পর্যন্ত কোনো রাজনৈতিক দলই সুদীপকে ধাক্কা দেওয়ার মতো কোনো প্রার্থী দিতে পারেনি।শাসক দল অশোক সিনহাকে প্রার্থী করেছে ঠিকই, কিন্তু সংসদীয় রাজনীতির লেকচিত্রে অশোক সিনহা কয়েক যোজন পিছিয়ে সুদীপ রায় বর্মনের তুলনায়।

৬-আগরতলা কেন্দ্রে সুদীপ রায় বর্মনের সমর্থনের প্রচার।

সুদীপ রায় বর্মন এখনো বাড়ি বাড়ি প্রচার শুরু করেননি। কিন্তু অনুগামীরা প্রতিদিন সুদীপের হয়ে প্রচার শুরু করেছে। তারা মানুষকে বুঝানোর চেষ্টা করছে, একমাত্র সুদীপই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছিলেন।এই কারণেই তিনি বিজেপি ছেড়ে দিয়েছেন।এখন সুদীপের হাত ধরেই রাজ্যে আবারও পরিবর্তন হতে পারে। এলাকার কংগ্রেস রোহিজ মিয়া, তপন চক্রবর্তীরা নিয়মিত ভাবেই তাদের প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.