ডেস্ক রিপোর্টার,৪জানুয়ারি।।
“নিরামিষ অস্ত্র” নিয়ে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর জন্য দলীয় কর্মী-সমর্থকদের ‘উপশম’ দিয়েছিলেন সিপিএম নেতা তথা প্রাক্তন মন্ত্রী ভানুলাল সাহা।তিনি এই সংক্রান্ত বিষয়ে ভানুলাল সাহা সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট দিয়েছিলেন। সোস্যাল মিডিয়াতে প্রাক্তন মন্ত্রীর এই সংক্রান্ত পোস্ট ঘিরে ঝড় উঠেছিলো রাজ্য রাজনৈতিক মহলে।ভানুলাল সাহার বিরুদ্ধে রাজ্যের বিভিন্ন থানায় দায়ের করা হয়েছিলো মামলা।পরবর্তী সময়ে এই মামলা গড়ায় আদালত পর্যন্ত। আদালত থেকে ভানুলাল সাহা জামিনে মুক্তি পান।
সম্প্রতি সিপিআইএম নেতা ভানুলাল সাহা দ্বারস্থ হয়েছিলেন ত্রিপুরা উচ্চ আদালতের।ভানুলাল সাহা আদালতে আবেদন করেছিলেন তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা বাতিল করতে।আদালত ভানুলাল সাহার এই মামলা গ্রহণ করে।মঙ্গলবার উচ্চ আদালতে এই মামলার শুনানি হয়।আদালত বাদী-বিবাদী দুই পক্ষের আইনজীবীদের সওয়াল জবাব শুনার পর ভানুলাল সাহার আবেদন প্রত্যাখ্যান করে দেয়।
উচ্চ আদালত স্পস্ট ভাবে জানিয়ে দেয়, ভানুলাল সাহার বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলা প্রত্যাখ্যান করা হবে না।কারণ ভানুলাল সাহার এই ধরণের পোস্ট সমাজে একটা প্রভাব পড়বে।ভানুলাল সাহা একজন সিপিআইএম নেতা, প্রাক্তনমন্ত্রী।তাঁর কথায় সিপিআইএমের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে একটা বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হতে পারে।এরফলে রাজ্যর আইন-শৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কা থাকতে পারে। এই প্রেক্ষাপট থেকেই ত্রিপুরা উচ্চ আদালত ভানুলাল সাহা আবেদন খারিজ করে দিয়েছে।জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.