লংতরাইভ্যালি ডেস্ক,৪মে।।
ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত দুই শিশু মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র লংতরাইভ্যালির মানিকপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র। মৃত দুই শিশুর পরিবার পরিজনদের হাতে সংঘবদ্ধ আক্রমণে রক্তাক্ত মানিকপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের এমওআইসি চিকিৎসক প্রণব দেববর্মা। তিনি বর্তমানে কুলাই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ঘটনাস্থলে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।বুধবার দুপুরের এই ঘটনা কেন্দ্র করে উত্তেজনা বিরাজ করছে মানিকপুর হাসপাতাল চত্বরে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ উজেজিত জনতার বিরুদ্ধে মানিকপুর থানায় মামলা দায়ের করে।

মানিকপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র।

মানিকপুর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এদিন সকালে শরীরে প্রচন্ড জ্বর নিয়ে স্থানীয় কাছাড়ি ছড়ার দুই শিশু ধর্মিতা ত্রিপুরা( ৩)ও ধনঞ্জয় ত্রিপুরাকে(৫) নিয়ে হাসপাতালে আসে পরিবারের লোকজন।শিশু দুইজন সম্পর্কে ভাই-বোন। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কিছুক্ষণ পর পরই শিশু দুইটির শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে। চিকিৎসকরা প্রয়োজনীয় চিকিৎসাও করে। রক্ত পরীক্ষা করে চিকিৎসকরা জানিয়ে দেন, ধর্মিতা ও ধনঞ্জয় উভয়েই ম্যালেরিয়ায় আক্রান্ত। সেই অনুযায়ী শুরু হয় চিকিৎসা। চিকিৎসা শুরু হওয়ার অল্প কিছুক্ষনের মধ্যেই চিকিৎসকদের সমস্ত চেষ্টা ব্যর্থ করে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে।

আক্রান্ত চিকিৎসক প্রণব দেববর্মা।

একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই আশপাশ এলাকার লোকজন ছুটে আসে মানিকপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। প্রথমে শিশুর পরিবারের লোকজনের সঙ্গে হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের বাক যুদ্ধ শুরু হয়। চিকিৎসক কোনো ভাবে শোকার্ত পরিবারের লোকজনকে শিশুদের মৃত্যুর কারণ বুঝানোর চেষ্টা করেন।কিন্তু পরিবারের লোকজন চিকিৎসকদের কথা মানতে নারাজ। তাদের বক্তব্য, সঠিক ভাবে শিশুদের চিকিৎসা হয়নি হাসপাতালে।এই কারণেই শিশু দুইজনের মৃত্যু হয়েছে।

মানিকপুর হাসপাতাল চত্বরে পুলিশী ব্যবস্থা।

একসময় পরিস্থিতি বিগড়ে যায়।উত্তেজিত জনতা ক্ষোভে ফেটে পড়ে।এবং হাসপাতালে নির্বিচারে ভাঙচুর চালায়। চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য কর্মীদের মারধর করে।মানিকপুর প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রের এমওআইসি চিকিৎসক প্রণব দেববর্মার মাথায় আঘাত করে লোহার রড দিয়ে। সঙ্গে সঙ্গেই রক্তাক্ত অবস্থায় হাসপাতালে লুটে পড়েন চিকিৎসক প্রণব দেববর্মা। ঘটনার খবর পেয়ে ছুটে আসে পুলিশ। পরিস্থিতি বিবেচনা করে মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত নিরাপত্তা বাহিনী। শেষ পর্যন্ত পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। রক্তাক্ত চিকিৎসক প্রণব দেববর্মাকে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটে মানিক পুর হাসপাতালেই।সঙ্গে সঙ্গে তাকে রেফার করা হয় কুলাই হাসপাতালে। পুলিশের হস্তক্ষেপেই দুই শিশুর মৃতদেহ নিয়ে বাড়িতে ফিরে যান তাদের পরিবারের লোকজন।এই ঘটনা কেন্দ্র করে দিনভর তীব্র উত্তেজনা বিরাজ করে মানিক পুর হাসপাতাল চত্বরে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.