তেলিয়ামুড়া ডেস্ক, ৪সেপ্টেম্বর।।
         ভাদ্র আশ্বিন দুইটি মাস শরৎকাল অর্থাৎ শরৎ ঋতু। বাংলা ছয়টি ঋতুর মধ্যে শরৎ একটি অন্যতম ঋতু । শরৎ ঋতুতে আকাশের ঘনঘটা কালো মেঘ সরে নীল স্বচ্ছ আকাশ সূর্যের কিরণে ঝলমল করে । এ যেন শরৎ ঋতুর এক অপূর্ব দৃশ্য । শরৎ ঋতু মানে শারদীয়ার আগমনি বার্তা মূলত শরতের শারদীয়া হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের চিত্তকে আন্দোলিত করে তুলে । শরতের মৃদুল বাতাস কাশবনে কাশফুলের আন্দোলিত হওয়ার দৃশ্য চারদিকে ফুটে উঠেছে ।


শারদীয়ার প্রস্তুতি হিসেবে মূর্তিপাড়াতেও মৃৎশিল্পীরা গুটি গুটি করে দুর্গা দেবীর কাঠামো তৈরি করে চলছেন । তবে শরৎকালে কাশবনের কাশফুল ফুটার সাথে সাথেই শারদীয়ার আগাম বার্তা । কেমন যেন শারদীয়া পূজোর ভাব । চারিদিকে পূজো পুজো গন্ধ । কেননা হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের কাছে প্রধান উৎসবেই হলো শারদীয়া উৎসব । উৎসব মানেই অফুরন্ত আনন্দ । এই শরৎ ঋতুতে কাশবনে কাশফুলের পাশাপাশি শিউলি ফুল সহ রকমারির ফুলের সৌরভ মুখরিত হয়ে ওঠে। এ প্রসঙ্গে এলাকার এক নাট্যকার মনো রঞ্জন গোপ বলেন ঋততে মানুষজন আনন্দে মাতোয়ারা হয়ে ওঠে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.