ডেস্ক রিপোর্টার,৫এপ্রিল।।
রাজ্য সভার সাংসদ হিসাবে শপথ গ্রহণ করলেন প্রদেশ বিজেপি’র সভাপতি ডা. মানিক সাহা।মঙ্গলবার তিনি সংসদে শপথ বাক্য পাঠ করেন। সেই সঙ্গে রাজ্য রাজনীতির ইতিহাসের পাতায় সৃষ্টি করেছেন নতুন নজির। দীর্ঘ ২৪ বছর পর ত্রিপুরা থেকে অবাম কোনো রাজনৈতিক দলের সাংসদ জায়গা পেয়েছেন রাজ্য সভায়।এবং ভারতীয় জনতা পার্টির ত্রিপুরা প্রদেশ থেকে ডা. মানিক সাহাই প্রথম ব্যক্তি যিনি রাজ্য সভার সাংসদ হয়েছেন।

১৯৯৮ থেকে ২০২২-র মার্চ মাস পর্যন্ত ত্রিপুরা থেকে বাম সাংসদরাই রাজ্য সভায় প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তার আগে অবশ্যই কংগ্রেস ও বামেদের প্রতিনিধি ধাপে ধাপে ত্রিপুরা থেকে রাজ্য সভার সাংসদ হয়েছেন।১৯৯৮ সালে রাজ্য সভার সাংসদ হয়েছিলেন প্রয়াত বাম নেতা খগেন দাস।২০০২ সালে ত্রিপুরা থেকে রাজ্য সভায় গিয়েছিলেন সিপিআইএম নেতা মতিলাল সরকার। ২০১০ ও ২০১৬ এই দুটি রাজ্য সভার নির্বাচনে ত্রিপুরায় বামেদের প্রার্থী ছিলেন ঝর্ণা দাস বৈদ্য।তিনি নির্বাচনে জয়ী হয়ে গিয়েছিলেন রাজ্য সভায়।

এবার ঘটেছে ব্যতিক্রম। রাজ্যের শাসক দল বিজেপি’র প্রার্থী ডা. মানিক সাহা হয়েছেন রাজ্য সভার সাংসদ। ডা. মানিক সাহা দেশের পার্লামেন্ট ভবনে সাংসদ হিসাবে শপথ গ্রহণের পর তাঁকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব। এই সংক্রান্ত বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী তাঁর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেন,”আমি নিশ্চিত সংসদের অন্যান্য গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সঙ্গে দেশের নীতি নির্ধারণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন ডা. মানিক সাহা। ত্রিপুরার উন্নয়নে ত্রিপুরাবাসীর কন্ঠ হিসাবে কাজ করবেন ডা. মানিক সাহা।”
প্রদেশ সভাপতি ডা. মানিক সাহার শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান কেন্দ্র করে বিজেপি’র কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ লক্ষ্য করা যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.