ডেস্ক রিপোর্টার,৭এপ্রিল।।
প্রত্যাশিত ভাবেই “মেহেঙ্গাই মুক্ত ভারত অভিযান” সফল ভাবে শেষ করলো প্রদেশ কংগ্রেস। বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজপথে মেহেঙ্গাই মুক্ত ভারত অভিযানের ব্যানারকে সামনে রেখে মিছিল করে প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব। মিছিলের অগ্রভাগে ছিলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বীরজিৎ সিনহা, কংগ্রেস নেতা সুদীপ রায় বর্মন, আশীষ সাহা, গোপাল রায়,এআইসিসির নেত্রী জরিতা সহ অন্যান্য নেতৃত্ব।

এদিন পোস্টঅফিস চৌমুহনীস্থিত প্রদেশ কংগ্রেস ভবন থেকে শুরু হয় মিছিল।শহরের বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করে রাজ্য পুলিশের মহানির্দেশকের কাছে ডেপুটেশনে মিলিত হয়।
হয় সভাও। অনুষ্ঠিত সভায় কংগ্রেস নেতৃত্ব কেন্দ্রের মোদী সরকারের বিরুদ্ধে কামান দাগান। নেতৃত্ব বলেন, গোটা দেশ জ্বলছে দ্রব্য মূল্য বৃদ্ধির আগুনে। পেট্রোল,ডিজেল থেকে শুরু করে গ্যাস সহ প্রতিটি নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম আকাশ ছোঁয়া। সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাচ্ছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের পাশাপাশি রাজ্যের বিজেপি সরকারকেও তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব। কংগ্রেস নেতৃত্ব রাজ্যের শাসক দল বিজেপি’র সন্ত্রাস নিয়ে সরব হয়। কংগ্রেস নেতৃত্বের দাবি, রাজ্যে উন্নয়নের নামে লুঠ চলছে। কমিশন ব্যতীত কিছুই হয়না। রাজ্য ও কেন্দ্রের ডাবল ইঞ্জিন সরকারের চাপে পড়ে নাভিশ্বাস উঠছে আমজনতার। গোটা দেশে একমাত্র কংগ্রেসই মানুষের সমস্যা নিরসন করতে পারে বলে দাবি প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্বের।এদিন প্রদেশ কংগ্রেসের এই কর্মসূচিতে কর্মী-সমর্থকদের উপস্থিতি ছিলো লক্ষ্যণীয়।

আট দফা দাবির ভিত্তিতে প্রদেশ কংগ্রেস রাজ্য পুলিশের মহানির্দেশকের কাছে ডেপুটেশন দিয়েছে। রাজ্যে মধ্যে উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে প্রত্যেক দিন বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের উপর অত্যাচার শুরু হওয়া অত্যাচার বন্ধ করা সহ তাদের উপর দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়েছে। পুলিশ মহানির্দেশকের কাছে কংগ্রেসকে ধরণা,মিছিল,মিটিং করার অনুমতি দেওয়ার দাবি জানিয়েছে নেতৃত্ব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.