ডেস্ক রিপোর্টার,আগরতলা।।
” ভারতীয় জনতা পার্টির কাছে আমরাও বোকা হয়েছি। বিজেপি’তে যোগ দেওয়ার কোনো ইচ্ছা ছিলো না, কিন্তু মানুষের চাহিদার কারণে যোগ দিয়েছিলাম”। বক্তা সুদীপ রায় বর্মন।
কংগ্রেস নেতা সুদীপ রায় বর্মন বলেন,” ২০১৮ সালে কংগ্রেসের সাজানো ইস্যু দিয়ে বিজেপি বৈতরণী পাড় হয়েছে। বিজেপি’র কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এসে দিয়েছেন প্রতিশ্রুতি।কিন্তু একটি প্রতিশ্রুতিও পালন করে নি বিজেপি। ভারতীয় জনতা পার্টি রাজ্যের মানুষের সঙ্গে এভাবে প্রতারণা করবে তা স্বপ্নেও ভাবি নি। বিজেপি নেতৃত্ব ভিশন ডকুমেন্টের নামে মানুষকে প্রলুব্ধ করেছে। কাজের কাজ কিছুই করেনি।
৬-আগরতলা কেন্দ্রের কংগ্রেস প্রার্থী সুদীপ রায় বর্মন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের নাম মুখে না নিয়ে কটাক্ষ করে বলেন,” অমুকের হাত ধরে ত্রিপুরায় পরিবর্তন এসেছে।একথা বলে থাকে বিজেপি।কিন্তু এটা ভুল। সুদীপ বলতে চেয়েছেন, মানুষ পরিবর্তন চেয়েছে বলেই তা সম্ভব হয়েছে, সম্মিলিত প্রয়াসে।শুধুমাত্র একজনের জন্য পরিবর্তন হয়নি।
সুদীপ রায় বর্মনের প্রশ্ন, ভিশন ডকুমেন্ট অনুযায়ী বিজেপি কয়টি প্রতিশ্রুতি পালন করেছে? রাজ্যের মানুষকে বিজেপি বোকা বানিয়ে ক্ষমতায় এসেছে।সুদীপ দাবি করেন, মানুষের প্রতি আস্থা নেই বিজেপি’র। এই কারণেই বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর যত গুলি নির্বাচন হয়েছে, সবগুলিতেই জোৎচুরি করতে হয়েছে।
সুদীপ রায় বর্মন এদিন, আবারও বিজেপি’র বাইক বাহিনী,হ্যালমেট বাহিনীকে সতর্ক করে দিয়ে বলেন, তাদেরকে বিপথে পরিচালিত করা হচ্ছে। এই পথ থেকে তারা দ্রুত ফিরে না এলে একদিন হারিয়ে যাবে।

রাজনীতিকরা বলছেন, উপভোটের আবহে সুদীপ রায় বর্মনের এই বক্তব্য রাজনৈতিক ভাবে যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। তিনি ব্যাখ্যা দিয়েছেন, কেন যোগ দিয়েছিলেন বিজেপিতে এবং কেন ছেড়েছেন বিজেপি।সব মিলিয়ে ভোটের মুখে আবেগ তাড়িত সুদীপ রায় বর্মন বিজেপিকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করে জমিয়ে দিতে চাইছেন ভোট ময়দান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.