ডেস্ক রিপোর্টার,৮অক্টোবর।।
তৃণমূল কংগ্রেসের অন্তর্কোন্দলের ফস্কা গেরুতে আটকে গেলো বিধায়ক আশীষ দাসের যোগদান পর্ব। তৃণমূল সূত্রের খবর ছিলো, বুধবার তিনি যোগ দেবেন ঘাসফুলে।কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা হয়নি। অভিযোগ, প্রদেশ তৃণমূলের একাংশ নেতৃত্বের কারণেই আশীষ দাসের যোগদান পর্ব ভেস্তে যায়। আশীষ তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলে মিডিয়ার ফোকাস থাকবে তার দিকে।তাই পূর্ব পরিকল্পনা মাফিক এদিনই তৃণমূল কংগ্রেসের স্টিয়ারিং কমিটির ঘোষণা দেওয়া হয়। মিডিয়ার ফোকাস চলে যায় সুবল ভৌমিকের দিকে।শুধু কি তাই আশীষ দাসের তৃণমূলে যোগদানের বিষয় নিয়ে দলীয় স্তরে কটাক্ষ করেন তৃণমূল সাংসদ সুস্মিতা দেব।
ঘাসফুলের অন্দর মহলের খবর, সুস্মিতা দেব আশীষ দাস সম্পর্কে উক্তি করেছেন,”কে আশীষ?তিনি তাকে চেনেন না।” অর্থাৎ আশীষ দাস তৃণমূল কংগ্রেসে আসুক এটা চাইছে না সুবল-সুস্মিতারা। সুবল ভৌমিক ভালো করেই জানেন নানান কারণে সুবল ভৌমিকের তুলনায় আশীষের টিআরপি বেশি। ত্রিপুরাতে সুস্মিতা দেবকে কয়জনই জানেন।স্বাভাবিক ভাবেই এই মুহূর্তে আশীষ দাস সামনে চলে এলে সুবল ভৌমিকের রাজনৈতিক বাণিজ্যে আঘাত লাগবে।
তৃণমূল কংগ্রেসের খবর অনুযায়ী, আই-প্যাকের সঙ্গে আগাম বোঝাপড়া করেই সাজানো হয়েছে গোটা চিত্র নাট্য। আই-প্যাক স্টিয়ারিং কমিটির নাম পাঠিয়েছে কলকাতায়।স্টিয়ারিং কমিটি ঘোষণা হতে চলেছে এই সংক্রান্ত খবর আই-প্যাক টিম আগাম সাংবাদিক মাধ্যমকে জানিয়ে দিয়েছে। তা থেকে পরিষ্কার সুবল ভৌমিকের সঙ্গে রাজ্যে অবস্থানরত আই-প্যাকের সদস্যদের সম্পর্ক কতটা গাঢ়।
বঙ্গ তৃণমূল কংগ্রেস ভবন সূত্রে জানা গেছে, বুধবার তৃণমূলে যোগ দিতে না পারায় হতাশ হয়েছেন বিধায়ক আশীষ দাস।গোটা ষড়যন্ত্র তার কাছেও পরিষ্কার।এই বিষয় নিয়ে বিধায়ক কথা বলেছেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে। অভিষেক নেমেছেন ড্যামেজ কন্ট্রোলে।তারমধ্যে ত্রিপুরা তৃণমূল কংগ্রেসের প্রদেশ স্টিয়ারিং কমিটি গঠন নিয়ে সন্তুষ্ট নন দলের একাংশ নেতা-কর্মী। লাগছে বিক্ষোভের আচড়।সব মিলিয়ে বিধায়ক আশীষ দাস আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা না দিলেও তিনি যে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেবেন এটা পরিষ্কার।তবে শুরুতেই তিনি সুবল ভৌমিকের ষড়যন্ত্রের প্রথম ধাপের সম্মুখীন হয়েছে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল। এখন শারদ উৎসবের পরই আশীষ দাস যোগ দেবেন তৃণমূল কংগ্রেসে। এমনই খবর আশীষ দাসের ঘনিষ্ঠ মহলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.