ডেস্ক রিপোর্টার,৯জানুয়ারি।।
রাজ্যে আছড়ে পড়ছে করোনার তৃতীয় ঢেউ।প্রতিদিন রকেট গতিতে বাড়ছে সংক্রমণ। গত ২৪ঘন্টায় রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ২০৬জন।করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে প্রাথমিক ভাবে রাজ্য প্রশাসন “নাইট কার্ফু”র সিদ্ধান্ত নিয়েছে।সোমবার থেকে রাজ্যে লাগু হবে “নাইট কার্ফু”। প্রতিদিন রাত ৯টা থেকে লাগু হবে কার্ফু।পরের দিন ভোর পাঁচটা পর্যন্ত বলবৎ থাকবে কার্ফুর নিয়ম।রবিবার মহাকরণে সাংবাদিক বৈঠক করে একথা জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী। মন্ত্রী জানিয়েছেন, যে সকল স্কুল,কলেজে পরীক্ষা চলছে সেগুলিতে চলবে পরীক্ষা। এছাড়া আপাতত সমস্ত সরকারি-বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে।
এদিন সদর মহকুমা প্রশাসনের উদ্যোগে ত্রিপুরা মার্চেন্ট এসোসিয়েশনের প্রতিনিধি এবং বিভিন্ন শপিং মহলের মালিকদের নিয়ে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে সদর মহকুমা শাসক ব্যবসায়ীদের জানিয়ে দিয়েছে, করোনার সমস্ত নিয়ম মেনেই করতে হবে ব্যবসা। নিয়ম লঙ্ঘন করলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে করা হবে জরিমানা। প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে করোনার প্রথম ঢেউ ও দ্বিতীয় ঢেউ’য়ের সময় যে সমস্ত নিয়ম ছিলো এবার একই নিয়ম জারি থাকবে।
করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের পাশাপাশি গোটা দেশজুড়ে চোখ রাঙাচ্ছে ওমিক্রন।এখন পর্যন্ত রাজ্যে ওমিক্রনের অস্তিত্ব পাওয়া যায় নি।তবে যে কোনো সময় আবির্ভাব হতে পারে ওমিক্রন।আশঙ্কা চিকিৎসকদের।রাজ্যে ইতিমধ্যে মধ্যে করোনার কামড়ে মৃত্যু হয়েছে একজনের।করোনার তৃতীয় ঢেউয়ে এটাই প্রথম মৃত্যু রাজ্যে। করোনার প্রথম,দ্বিতীয় ও তৃতীয় ঢেউ মিলিয়ে ৮২৭জনের মৃত্যু হয়েছে রাজ্যে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.