ডেস্ক রিপোর্টার,৯ আগস্ট

“মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাখির চোখ ত্রিপুরা।অর্থাৎ ত্রিপুরা চাইছেন মমতা।ভয়,দমন-পীড়ন চালিয়ে তৃণমূলকে রুখা যাবে না।” বললেন তৃনমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সম্পাদক কুনাল ঘোষ।সোমবার সাংবাদিক বৈঠক করে তিনি একথা বলেন।
সাংবাদিক বৈঠকে কুনাল দাবি করেন,”ত্রিপুরাতে চলছে জঙ্গলরাজ।এখানের পুলিশ অমানবিক।কারণ পুলিশের সামনেই তৃনমূল নেতা-কর্মীদের প্রকাশ্যে মারধর করা হয়েছে।অনৈতিক ভাবে পুলিশ আটক করে রেখেছিলো তৃনমূল নেতা-কর্মীদের।” কুণালের ভাষায়, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের উচিত ত্রিপুরাতে এসে এই সমস্ত ঘটনা খতিয়ে দেখা।কিন্তু তারা আসবে না।তারা চলে যাবে বাংলায়।বলবে বাংলায় নেই গণতন্ত্র।কিন্তু বাস্তবে ত্রিপুরার গণতন্ত্রের কদর্য চেহারা নিয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন কিছুই বলছে না।
রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবকে কটাক্ষ করে কুনাল বলেন,” বিজেপির ভিতর থেকেই আওয়াজ উঠছে, দলের লোকজন বিপ্লব দেবকে মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে চাইছে না।” তৃণমূলের সম্পাদক কুনাল ঘোষ ১০৩২৩-চাকরিচ্যুত শিক্ষকদের ইস্যু নিয়ে সরব হন তিনি।এক হাত নেন সিপিআইএম ও বিজেপিকে।
এদিনের অনুষ্ঠিত সাংবাদিক বৈঠকে তৃনমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় মুখপাত্র, স্থানীয় তৃনমূল নেতা সুবল ভৌমিক,আশীষ লাল সিংহ সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.