ডেস্ক রিপোর্টার,১০এপ্রিল।।
বিশ্ব রাজনীতিতে নয়া চমক। পুতিনের আগ্রাসনের মাঝেই ইউক্রেন সফরে গেলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিনি বৈঠক করলেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের ইউক্রেন সফর কেন্দ্র করে ঝড় বইছে গোটা বিশ্ব রাজনীতির মানচিত্রে। গত ২৪ফেব্রুয়ারি রাশিয়া যুদ্ধ ঘোষণা করেছিলো ইউক্রেনের বিরুদ্ধে। যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর এটাই ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর প্রথম ইউক্রেন সফর। ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে বৈঠক করেন বরিস জনসন ও ভলোদিমির জেলেনস্কি। ইউনাইটেড কিংডমে থাকা ইউক্রেনের দূতাবাস টুইট করে দুই রাষ্ট্র নেতার বৈঠকের কথা ঘোষণা করে।

যুদ্ধ বিপর্যস্ত ইউক্রেনকে আরো আর্থিক সহায়তা ও সামরিক সহায়তা দেওয়ার জন্য ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন আলোচনা করেছেন ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে। ইতিমধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র , জাপান সহ পশ্চিমা দেশগুলি পুতিনের রাশিয়া থেকে কয়লা আমদানির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিশ জনসনের সফরের একদিন আগে ইউক্রেনের গিয়েছিলেন ইউরোপীয় কমিশনের প্রধান উরসুলা ভন ডার লেইন। তিনি সফর করেছিলেন ইউক্রেনের বুচা শহরে। এই শহরেই ইউক্রেনের সাধারণ মানুষকে খুন করে গণকবর দেওয়ার অভিযোগ উঠেছিলো রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের সেনার বিরুদ্ধে।সব মিলিয়ে আন্তর্জাতিক স্তরে রাশিয়ার উপর ক্রমশ বাড়ছে চাপ। বিশ্ব রাজনীতির মানচিত্রে একঘরে হয়ে যাচ্ছে রাশিয়া।এমনটাই মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.