ডেস্ক রিপোর্টার:১০সেপ্টেম্বর।।
নাম রসময় নম:।বাড়ি উত্তর জেলার কাঞ্চনপুরে।একেবারে নিতান্ত ভদ্রলোক।তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের একজন নিষ্ঠাবান কর্মী।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার কাছে আরাধ্য দেবীর মতো।তাই দেও নদী দিয়ে রাজ্য রাজনীতির এতো জল বয়ে গেলেও তিনি ছিলেন অবিচল।দীর্ঘ বছর ধরে পূর্বতন শাসক সিপিআইএম’র চোখ রাঙানী, তারপর বিজেপি’র সাঁড়াশি আক্রমণ।সবই নীরবে সহ্য করেছেন মুখ বুজে।তারপরও তার হাত থেকে খসে যায়নি তৃণমূল কংগ্রেসের ঝান্ডা ও মন থেকে মুছে যায়নি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি।
ভাগ্যের পরিহাস।আজ অসহায় রসময় নম:।তার মেয়ে দেবযানী অসুস্থ।দুইটি কিডনি নষ্ট হয়ে গেছে। মেয়ের চিকিৎসার জন্য টাকা নেই তার হাতে। গোটা আকাশ ভেঙে পড়েছে তার মাথায়। রসময় ও তার স্ত্রী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা দুইজন একটি, একটি কিডনি মেয়েকে দিয়ে দেবেন।তাতেও কি সমস্যার সমাধান হবে? না, কারণ কিডনি বদলাতে গেলে প্রয়োজন মোটা অংকের টাকার।করতে হবে অপারেশন। গরীব রসময় কোথায় পাবেন টাকা? রসময়ের গোটা পরিবার যখন টাকার জন্য হন্যে হয়ে ঘুরছে,তখন কর্মীদের কাছ থেকে এই খবর শুনে রসময়ের বাড়িতে ছুটে যান তৃণমূল কংগ্রেস নেতা আশীষ লাল সিংহ। আশ্বাস দেন কিছু একটা করার।
আশীষ লাল সিংহ বলেন, “রসময়ের মেয়ের অসুস্থতার কথা জানার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।তিনি গোটা বিষয়টি অভিষেকের দৃষ্টিতে নেন।”
দলের কর্মী রসময়ের মেয়ের অসুস্থতার কথা শুনে কি করলেন অভিষেক? তৃণমূল নেতা আশীষ লাল সিংহের কথায়,” অভিষেক সঙ্গে সঙ্গে তাঁর মানবিক হাত বাড়িয়ে দিলেন।রসময়ের মেয়ের কিডনি পরিবর্তন করতে
অস্ত্রোপচার বাবদ সমস্ত খরচ বহন করার প্রতিশ্রুতি দিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।”
আশীষ লালের বক্তব্য, শুধু কি তাই, দমদম বিমান বন্দরে রাখা থাকবে এম্বুলেন্স। রসময় নম: তার মেয়েকে নিয়ে দমদম বিমান বন্দরে পৌঁছলেই এম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া হবে এস এস কে এম হাসপাতালে।এখানেই হবে রসময়ের মেয়ে দেবযানীর কিডনি পরিবর্তনের
অস্ত্রোপচার। তৃণমূল কংগ্রেসের সর্ব ভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এই সংক্রান্ত নির্দেশও দিয়েছেন দলের লোকজনকে।
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই মানবিক মুখের কথা আশীষ লাল সিংহের মাধ্যমে পৌঁছে যায় রসময় নম:’র ঘরে। নেতা অভিষেকের এই মানবিক মুখের কথা শুনে হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন দেবযানীর বাবা রসময়। শনিবার সকালে বিমানে রসময় তার অসুস্থ মেয়েকে নিয়ে কলকাতার উদ্দেশ্যে ত্যাগ করবেন আগরতলা।রাজ্যের মানুষও দেবযানীর দ্রুত আরোগ্য কামনা করছে।এবং ধন্যবাদ জানিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে। “জনতার মশাল” পরিবারের পক্ষ থেকেও মানবিক মুখের জন্য অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানানো হলো কুর্নিশ। অবশ্যই আশীষ লাল সিংহকেও অসংখ্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.