ডেস্ক রিপোর্টার,১১ফেব্রুয়ারি।।
সুদীপ-আশীষদের পথ অনুসরণ করেই কংগ্রেসে যোগ দিতে পারেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতা-তথা প্রাক্তন বিধায়ক আশীষ দাস।এমন খবর ঘুরপাক খাচ্ছে রাজনৈতিক মহলে।সুদীপ-আশীষরা আগরতলা এলেই এই বিষয়ে হবে চূড়ান্ত আলোচনা।সম্প্রতি প্রাক্তন বিধায়ক আশীষ দাসের গলায় কংগ্রেসের সুনাম করতে শোনা গেছে বলে বলে মন্তব্য করছে রাজনীতিকরা।
রাজনৈতিক মহলের খবর,সুরমার প্রাক্তন বিধায়ক আশীষ দাস তৃণমূলের সংসারে অশান্তিতে আছেন।নানান কারণে তৃণমূল নেতৃত্ব তাকে উপযুক্ত গুরুত্ব দিচ্ছে না।দলীয় কর্মসূচি সহ গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক গুলিতে ডাকা হচ্ছে না আশীষকে।তাছাড়া বিজেপি থেকে তৃণমূল কংগ্রেস যাওয়ার সময় ঘাসফুল নেতৃত্ব যে সমস্ত প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো তা রাখেনি।বর্তমানে আশীষ দাস ভুগছেন হতাশায়। রাজনীতিকরা মনে করছেন, আশীষ দাসের রাজনৈতিক জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস সুখকর হয়নি।এক সময় সুদীপ রায় বর্মনের সঙ্গে সংস্কারপন্থীদের দলের অন্যতম সৈনিক ছিলেন তিনি।কিন্তু সবার আগেই আশীষ দাস বিজেপিকে বিদায় জানিয়েছেন।এবং যোগ দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসে।কিন্তু আক্ষরিক অর্থে তাঁর কোনো লাভ হয়নি।যে উদ্দেশ্যে আশীষ দাস বিজেপি ছেড়েছেন তা হয়নি সফল। এক সময় রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন ছিলো সুদীপ রায় বর্মন সহ আশীষ সাহারা যোগ দেবেন তৃণমূল কংগ্রেসে। হবেন দলের সভাপতি।আশীষ দাস জানতেন, সুদীপ তৃণমূলে এলে তাঁর গুরুত্ব বাড়বে।কিন্তু সুদীপ চলে যান কংগ্রেসের কক্ষ পথ ধরে।
তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দর মহলের খবর, তৃণমূল কংগ্রেস নেতা সুবল ভৌমিকের সঙ্গে আশীষ দাসের সম্পর্ক মধুর নয়।সুবল কোনো কারণে আশীষ দাসকে গুরুত্ব দিতে নারাজ।কিন্তু এখন পর্যন্ত বঙ্গ নেতৃত্ব সুবলকেই সামনে রেখে সাংগঠনিক পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন।স্বাভাবিক ভাবেই আশীষ দাস আরো কোণঠাসা হয়ে পড়েছেন দলে।তবে তৃণমূল কংগ্রেসে সুবল লবি ব্যতীত অন্যরা আশীষ দাসকে গুরুত্ব দিচ্ছেন। তাতে অবশ্যই আশীষের কোনো লাভ হবে না বলেই মনে করছেন রাজনীতিকরা।কারণ সুবলের হাতে ব্যাটন থাকলে পচন ধরবে আশীষ দাসের রাজনৈতিক ক্যারিয়ারে।এই জন্য আশীষ দাস সুদীপের হাত ধরে পোস্ট অফিস চৌমুহনীর সাদা বাড়ি থেকে তাঁর রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের তৃতীয় ইনিংস শুরু করতে চাইছেন।আগামী কিছুদিনের মধ্যেই স্পস্ট হবে আশীষ দাসের রাজনৈতিক গতি প্রকৃতি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.