ডেস্ক রিপোর্টার,১১মে।।
রাজ্যের ৩০৯জন অবসর প্রাপ্ত পুলিশ কর্মীর বকেয়া টাকা সংক্রান্ত মামলার ফের শুনানি হবে দেশের সর্বোচ্চ আদালতে। বুধবার হবে শুনানি প্রক্রিয়া। এখন সুপ্রিম কোর্টের দিকেই তাকিয়ে আছেন অবসর প্রাপ্ত পুলিশ কর্মীরা। এর আগেও সুপ্রিম কোর্টে দুইবার করে এই মামলার শুনানি হয়েছিলো ।
১৯৯৩ সনের পুলিশ আন্দোলনে পর চাকরি থেকে ধাপে ধাপে অবসরে যাওয়া রাজ্যের ৩০৯জন পুলিশ কর্মী এখনো তারা চাকরি জীবনের সম্পুর্ন বেনিফিট পান নি। তাদের বেতন-ভাতার টাকা আটকে রেখেছে স্বরাষ্ট্র দপ্তর। পূর্বতন বাম সরকারের জমানাতেও বঞ্চিত পুলিশ কর্মীরা বকেয়া না পেয়ে উচ্চ আদালতে দ্বারস্থ হয়েছিল।মামলা বেশ কয়েক বছর আদালতে চলে। অবশেষে উচ্চ আদালত রায় দেয় বঞ্চিত পুলিশ কর্মীদের দিকে। এবং আদালত জানিয়ে দিয়েছিল তাদের বকেয়া টাকা মিটিয়ে দিতে। পূর্বতন বাম সরকার অবসর প্রাপ্ত পুলিশ কর্মীদের বকেয়া ডাকা ফিরিয়ে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছিল।প্রথম ধাপে বেশ কয়েকজন তাদের বকেয়া টাকা ফেরত পেয়েছিল।
বঞ্চিত পুলিশ কর্মীদের বক্তব্য, ২০১৮সালে রাজ্যে বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর ফের অবসর প্রাপ্ত পুলিশ কর্মীদের বকেয়া টাকা আটকে দেওয়া হয়। তারা বেশ কয়েকবার সরকারের সঙ্গে চিঠি করেছিলো।কিন্তু স্বরাষ্ট্র দপ্তর পরিষ্কার জানিয়ে দেয়, সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মীদের টাকা ফেরত দেওয়া যাবে না।এরপর বঞ্চিত পুলিশ কর্মীরা ফের উচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিল।এবং আদালত পুনরায় রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিয়েছিল টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য। কিন্তু রাজ্য সরকার উচ্চ আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জকে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়। ইতিমধ্যে দুইবার শুনানি হয়েছে এই মামলার।বুধবার ফের মামলা উঠবে সর্বোচ্চ আদলতে।
পুলিশ কর্মীদের বক্তব্য, “এটা আমাদের প্রাপ্য টাকা।কিন্তু রাজ্য সরকার উচ্চ আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে।সরকারের বিরুদ্ধে লড়াই করার মতো সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মীদের কোনো শক্তি নেই।তাদের প্রত্যেকের গড় বয়স ৬০ থেকে ৭০।তাছাড়া দীর্ঘ সময় মামলা চালানোর মত আর্থিক ক্ষমতা নেই তাদের।এই কারণেই সংশ্লিষ্ট বঞ্চিত প্রাক্তন পুলিশ কর্মীরা রাজ্য সরকারের কাছে আর্জি জানিয়েছে তাদের বকেয়া টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য।

Leave a Reply

Your email address will not be published.