ডেস্ক রিপোর্টার,আগরতলা।।
টাকারজলার পর ফের সিমনাতে বিক্ষোভের মুখে রাজ্যের উপজাতি কল্যাণ দপ্তরের মন্ত্রী রামপদ জমাতিয়া। শুক্রবার রামপদ জমাতিয়া সিমনাতে গিয়েছিলেন প্রশাসনিক শিবিরে যোগ দিতে।এদিন কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি ছিলো না।কিন্তু বিক্ষোভ ঠেকাতে পুলিশকে বাধ্য হয়ে কাঁদানে গ্যাস ছুড়তে হয়। মুহূর্তে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠে।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের কাঁদানে গ্যাস।

এদিন রামপদ জমাতিয়া গিয়েছিলেন সিমনার দারোগামুড়া বিদ্যালয়ে আয়োজিত প্রশাসনিক শিবিরে। তিনি ছিলেন প্রধান অতিথি। শিবির শুরু হওয়ার অল্প সময় পর আচমকা শতাধিক মহিলা প্রশাসনিক শিবির ঘিরে ফেলে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু।বিক্ষোভের লক্ষণ ভালো ছিলো না। তা আচ করতে পেরেই প্রশাসনিকস্থল ঘিরে ফেলে পুলিশ- টিএসআর ও সি আর পি এফ। রামপদ জমাতিয়ার সঙ্গে ছিলেন বিজেপি’র জনজাতি মোর্চার সহ-সভাপতি মঙ্গল দেববর্মা ও মহকুমা শাসক অনিরুদ্ধ রায়।

তিপ্রামথার মহিলা ব্রিগেডের আস্ফালন।

বিক্ষোভরত মহিলা শিবাঞ্জলী দেবর্বমা অভিযোগ করেন,” প্রশাসনিক শিবির আয়োজনের উপর তাদের কোনপ্রকার আপত্তি নেই। প্রশাসনিক শিবিরের জন্য আগাম প্রচার করা হয়নি। স্থানীয় বিধায়ক,এমডিসি ও ভিলেজ কমিটির চেয়ারম্যানদের আমন্ত্রণ না জানিয়ে নির্দিষ্ট একটি রাজনৈতিক দলের নেতৃত্বকে প্রশাসনিক শিবিরে ডাকা হয়েছে কেন?”

মহিলাদের প্রশাসনিক শিবির ঘেরাও।

প্রায় দুই ঘন্টা বন্ধ ছিলো প্রশাসনিক শিবির।শেষ পর্যন্ত কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে মন্ত্রীকে সেভ জোনে নিয়ে যায় পুলিশ।এই ঘটনা প্রসঙ্গে বিজেপির জনজাতি মোর্চা সহ- সভাপতি মঙ্গল দেবর্বমা অভিযোগ করেন দারোগামুড়াতে সংঘটিত ঘটনার নেপথ্যে রয়েছে তিপ্রামথা। মাথার নেতৃত্বের অঙ্গুলি হেলনেই এই ঘটনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.