ডেস্ক রিপোর্টার, আগরতলা।।
ছাত্র-ছাত্রীদের অনুশাসনের নামে প্রচন্ড বেত্রাঘাত। তাতে আহত বেশ কয়েকজন ছাত্র-ছাত্রী। ঘটনা রাজধানীর সখিচরন স্কুলে।অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম সুশান্ত কর সাহা।এই ঘটনা কেন্দ্র করে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অভিভাবকরা।
অভিভাবকদের বক্তব্য, সম্প্রতি স্কুল চলাকালীন নবম শ্রেণীর কয়েকজন ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষকের অনুপস্থিততে রুম থেকে বেরিয়ে যায়। অর্থাৎ শিক্ষক সময় মতো ক্লাসে না আসাতেই ছাত্র-ছাত্রীরা বেরিয়ে গিয়েছিলো ক্লাস থেকে। এমন সময় নবম শ্রেণীর এই ক্লাস রুমে প্রবেশ করেন শিক্ষক সুশান্ত কর সাহা। শিক্ষক প্রবেশের কিছুক্ষণ পর ক্লাস রুম থেকে বেরিয়ে যাওয়া ছাত্রী-ছাত্রীরা ফের রুমে প্রবেশ করে। শিক্ষক সুশান্ত কর সাহা তখন রেগে অগ্নিশর্মা হয়ে যান।এবং ছাত্র-ছাত্রীদের উপর অমানবিক ভাবে বেত্রাঘাত শুরু করে। বেতের আঘাতে রক্তাক্ত হয় নবম শ্রেণীর দুই ছাত্রী। আরো কয়েকজন অল্প-বিস্তর আহত হয়। শেষ পর্যন্ত দুই ছাত্রীকে নিয়ে যাওয়া হয় হাসপাতালে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।
এই ঘটনা জানাজানি হতে অভিভাবক মহলে প্রচন্ড ক্ষোভের জন্ম হয়। বিষয়টি জানানো হয়েছে স্কুলের প্রধান শিক্ষককে।রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীকেও লিখিত আকারে বিষয়টি অবগত করবেন।এমনকি শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় মামলাও দায়ের করা হবে।কারণ শিক্ষার অধিকার আইন অনুযায়ী, ছাত্র-ছাত্রীদের মারধর করা নিষেধ। এক্ষেত্রে আইন লঙ্ঘন করেছেন শিক্ষক সুশান্ত কর সাহা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.