ডেস্ক রিপোর্টার, আগরতলা।।
“নতুন ভারত গড়ার লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় সরকার আগামী ২৫ বছরের পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করছে । কেন্দ্রীয় সরকারের মূল লক্ষ্য দেশের সার্বিক বিকাশ ও উন্নত ভারত গড়ে তোলা । এই লক্ষ্যে সরকার সবকা সাথ সবকা বিকাশের লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে।”… বক্তা কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী রাজীব চন্দ্রশেখর। বৃহস্পতিবার খোয়াই টাউনহলে খোয়াই পুরপরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসের উদ্বোধন করে একথা বলেন তিনি।
এই অনুষ্ঠানে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রশেখর বলেন , সমাজের শেষ প্রান্তের প্রকৃত সুবিধাভোগীদের কাছে সরকারের উন্নয়ন কর্মসূচির সুযোগ পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে । পিএম আবাস , পিএম কিষাণ , আয়ুষ্মান ভারত , মুদ্রা যোজনা সহ অন্যান্য আরও অনেক প্রকল্প নতুন ভারত গড়ে তোলার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিচ্ছে । দেশের নানা প্রান্তের মানুষ এ সমস্ত প্রকল্পের সুযোগ নিয়ে উপকৃত হচ্ছেন ।


অনুষ্ঠানের শুরুতে খোয়াই পুরপরিষদের পক্ষ থেকে চার জন সুবিধাভোগীদের হাতে ই – রিক্সার চাবি , ৩ টি স্বসহায়ক দলকে ১ লক্ষ টাকা করে সহায়তা , টুয়েপ প্রকল্পে ৫ জন সুবিধাভোগীর হাতে টুয়েপ কার্ড তুলে দেওয়া হয় । কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী, রাজ্য ক্রীড়া পর্ষদের সচিব অমিত রক্ষিত সহ অন্যান্য অতিথিগণ তাদের হাতে এই সহায়তা তুলে দেন । তাছাড়াও স্বচ্ছ ভারত মিশন প্রকল্পে দীনদয়াল স্বসহায়ক দলের সদস্যদের অনুষ্ঠানে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের কথা তুলে ধরেন ক্রীড়া পর্ষদের সচিব অমিত রক্ষিত।তিনি বলেন, খোয়াইয়ের সিংহ ভাগ মানুষের(প্রকৃত সুবিধাভুগী) কাছে পৌঁছে গেছে সরকারি প্রকল্প।তাতে উপকৃত হয়েছে প্রচুর মানুষ।
অনুষ্ঠান শেষে খোয়াই জেলাশাসক কার্যালয়ের কনফারেন্স হলে কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে এক পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।পর্যালোচনা সভায় কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী রাজীব চন্দ্রশেখর বলেন , কৃষকদের আর্থসামাজিক মানোন্নয়নে কেন্দ্রীয় সরকার অগ্রাধিকার দিয়েছে । সেজন্য কৃষিপণ্যের বাজারজাতকরণ , চাহিদা ভিত্তিক পণ্য উৎপাদন , জৈব চাষের উপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে । সভায় কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী গ্রামীণ এলাকায় খাদ্যশস্য , ফল ও মৎস্য উৎপাদনে গুরুত্ব দিতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের আধিকারিকদের নির্দেশ দেন । সভায় উপস্থিত ছিলেন খোয়াই জিলা পরিষদের সভাধিপতি জয়দেব দেববর্মা , ক্রীড়া পর্ষদের সচিব অমিত রক্ষিত , জেলাশাসক এলটি ডার্লং সহ বিভিন্ন দপ্তরের আধিকারিকগণ ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.