ডেস্ক রিপোর্টার, ১৩জুন।।
উপভোটকে পাখির চোখ করে রাজ্যে আসছেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।মঙ্গলবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যে এসে করবেন রোড-শো।এবং জনসভা। সোমবার সাংবাদিক সম্মেলন করে একথা জানিয়েছেন সর্ব ভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ।
এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজধানীর গান্ধীঘাট থেকে শুরু করবেন রোড-শো। শহরের বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করে রোড-শো পৌঁছবে জিবি বাজারে। সেখান থেকে অনুষ্ঠিত হবে সভা। মূলত রাজধানীর দুইটি বিধানসভা কেন্দ্রেই প্রদক্ষিণ করবে অভিষেকের রোড-শো।
কুণাল ঘোষ জানিয়েছেন, উপনির্বাচন কেন্দ্র করে দুই দফায় রাজ্য সফর করবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ২০জুন অভিষেক রাজ্যে আসতে পারেন। তখন তিনি যাবেন সুরমা ও যুবরাজ নগর কেন্দ্রে। সেখানেও তিনি করবেন সভা। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সফর কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে জোর প্রস্তুতি চলছে প্রদেশ তৃণমূল শিবিরে।

প্রদেশ তৃণমূল কংগ্রেসের সাংবাদিক বৈঠক।

সর্বভারতীয় তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন শাসক দল বিজেপিকে। তিনি বলেন, বিজেপি প্রতিনিয়ত ভয় পাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেসকে। বিপ্লব কুমার দেবকে মুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সরানোর পেছনে তৃণমূল কংগ্রেসের ভূমিকা রয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস যা যা অভিযোগ করেছিলো, সবই সত্যি। এই কারণেই মুখ্যমন্ত্রীর পরিবর্তন। বিপ্লব কুমার দেবকে কেন মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে সরানো হলো? প্রশ্ন তুলেছেন কুণাল। এবং বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী ডা: মানিক সাহাকে নিয়েও বেশ কিছু জ্বালামুখী বাক্য খরচ করেন।
তৃণমূলের রাজ্য সভার প্রাক্তন সাংসদ কুণাল ঘোষ বলেন, ত্রিপুরায় বিজেপি’র একমাত্র বিকল্প শক্তি তৃণমূল। বিজেপি-সিপিআইএম ও কংগ্রেস প্রত্যেককে দেখে নিয়েছে রাজ্যের মানুষ। কুণাল ঘোষের অভিযোগ, কংগ্রেস সর্বভারতীয় স্তরেও বিজেপি’র হয়ে দালালি করছে।ত্রিপুরাতেও একই অবস্থা। কংগ্রেস বিজেপি’র দালাল।
সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত প্রদেশ তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি সুবল ভৌমিক বলেন, দেশের যুব আইকন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্য সফরে অনুষ্ঠিত রোড-শোতে প্রচুর কর্মী-সমর্থক অংশ গ্রহন করবে। সাংবাদিক বৈঠকে থাকা প্রদেশ তৃণমূল কংগ্রেসের ইনচার্জ রাজীব ব্যানার্জীও রাজ্যের শাসক দলকে তীব্র ভাষায় কটাক্ষ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.