ডেস্ক রিপোর্টার,১৪ জুন।।
“ত্রিপুরায় বিজেপি’র শাসনে দোয়ারে এনেছে গুন্ডা মডেল।২৩-এ তৃণমূল ত্রিপুরার মানুষের দোয়ারে আনবে ‘সরকার’।”—-বললেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার উপভোটে দলীয় দুই প্রার্থীর প্রচারে রাজ্যে এসে একথা বলেন অভিষেক।
এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজধানীর দুই কেন্দ্রের তৃণমূলের দুই প্রার্থীর সমর্থনে রোড- শো করেন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের রোড-শো শুরু হয় শহরের গান্ধীঘাট থেকে। এই রোড-শো শহরের বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করে জিবি বাজারে যায়। এখানেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় করেন জনসভা।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের রোড-শো’তে এদিন দলের কর্মী-সমর্থকদের সংখ্যা ছিলো উল্লেখযোগ্য। তৃণমূল কংগ্রেসের এই শক্তি আগামী দিনে রাজ্যের অন্যান্য রাজনৈতিক দলের কপালে ভাঁজ পড়তে পারে বলেই দাবি ঘাসফুল নেতৃত্বের। রোড-শো চলা কালে রাস্তার দুই পাশে উপস্থিত মানুষ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে স্বাগত জানান।
জিবি বাজারে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনসভাস্থলেও দলীয় কর্মী-সমর্থকদের সংখ্যা ছিলো প্রচুর। মঞ্চে ছিলেন বঙ্গ ও প্রদেশ ত্রিপুরার অন্যান্য নেতৃত্ব। তৃণমূল কংগ্রেসের যুবরাজ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের বিজেপি সরকারকে কটাক্ষ করে বলেন,” গত নভেম্বর মাসে ত্রিপুরায় এসে বলেছিলাম বিপ্লব দেবের বিদায় ঘণ্টা বাজবে।এবং সেটাই হয়েছে। এখন বিজেপি’র নৌকা ডুবতে শুরু করেছে।ছিঁড়ে গেছে কাপড়, তাপ্পি দিয়ে আটকানো যাবে না। ডা: মানিক সাহাও তা ধরে রাখতে পারবেন না।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ে বক্তব্য, ডা: মানিক সাহাকে মুখ্যমন্ত্রী করা, আর নতুন বোতলে পুরানো মদ রাখা একই বিষয়। রাজ্যের স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও কর্মসংস্থান সব ক্ষেত্রেই ত্রিপুরাকে পিছিয়ে গেছে।পূর্বতন বাম মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার রাজ্যটাকে ধ্বংস স্তূপে পরিণত করেছে।সাড়ে চার বছর শেষ করে দিয়েছেন বিপ্লব কুমার দেব।
অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস যা প্রতিশ্রুতি দেয়, তা রাখে।কিন্তু বিজেপি যা, প্রতিশ্রুতি দেয় তা রাখেনি। অর্থাৎ টিএমসি হচ্ছে হাই কোয়ালিটির একটি ডিভিডি।এবং বিজেপি হচ্ছে ভাঙা অডিও ক্যাসেট। অভিষেক জনতার উদ্দেশ্যে বলেন, ২২-র বিজেপি ‘সিএম’ হারিয়েছে,আর ২৩-এ হারাবে সরকার।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন, উপ নির্বাচনের প্রচারে তিনি আগামী ২০জুন ফের রাজ্যে আসবেন। এবং ২৩-র নির্বাচন কেন্দ্র করে ১৫দিন অন্তর অন্তর-ই আসবেন রাজ্যে। তৃণমূলের যুবরাজ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ৬-আগরতলা ও ৮-টাউন বড়দোয়ালি কেন্দ্রের প্রার্থীদের ভোট দেওয়ার জন্য ভোটারদের কাছে আহ্বান করেন

Leave a Reply

Your email address will not be published.