ডেস্ক রিপোর্টার, ১৫ফেব্রুয়ারি।।
” সিপিআইএম, কংগ্রেস ও বিজেপি প্রত্যেকের কাছেই এডিসি সৎ সন্তান। এডিসিকে নিয়ে ভাবনার অবকাশ নেই সংশ্লিষ্ট রাজনৈতিক দলগুলোর।”–বক্তা তিপ্রামথার সুপ্রিমো প্রদ্যুত কিশোর দেববর্মন। প্রদ্যুত কিশোর সংবাদ মাধ্যমকে স্পস্ট ভাবেই জানিয়ে দিয়েছেন, যে রাজনৈতিক দল সংবিধান মেনে তিপ্রামথার দাবি পূরণ করবে তাদের সঙ্গেই থাকবেন তিনি।এবং ২৩-র বিধানসভা নির্বাচনে প্রকাশ্যে করবেন “নির্বাচনী আতাত।তার জন্য অবশ্যই কথা হবে দিল্লিতে। রাজ্য সরকারের সঙ্গে এই সংক্রান্ত কথা হবে না। প্রদ্যুতের দাবি, বিধানসভা নির্বাচনে জোট নিয়ে এই মুহূর্তে কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গেই তাঁর কথা হয়নি।
আক্ষেপ করে প্রদ্যুত কিশোর বলেন, তিনি টাকার জন্য রাজনীতি করেন না।এমনকি ছুটেন না টাকার পেছনে। তিনি ইচ্ছা করলেই “এমপি” হয়ে বসে থাকতে পারতেন।তিনি লড়াই করছেন জনজাতিদের অধিকারের জন্য। জনজাতিদের সন্মান জানিয়ে যে রাজনৈতিক দল সম্মানের সঙ্গে অধিকার পাইয়ে দেবে তাদের সঙ্গে “ব্ল্যাক এন্ড হোয়াইট” নির্বাচনী সমঝোতা করবেন। তিপ্রামথার সুপ্রিমো তীর্যক ভাষায় বলেন, আগরতলার রাজনীতির প্রতি তাঁর কোনো লক্ষ্য নেই।তিনি শুধু এডিসিকে নিয়ে ভাবছেন।এবং কাজ করছেন জনজাতিদের মান উন্নয়নে।
প্রদ্যুত কিশোর বলেন, পাহাড়ে কাজ করছে তিপ্রামথা। বুধবার হায়দ্রাবাদে অ্যাপেলো হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এডিসি প্রশাসনের চুক্তি হবে। এই চুক্তি অনুযায়ী এডিসিতে হবে অ্যাপেলো হাসপাতাল। এক্ষেত্রে রাজ্য সরকার আর্থিকভাবে সাহায্য করেছে এডিসিকে।তার জন্য প্রদ্যুত রাজ্য সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। প্রদ্যুত কিশোরের অভিযোগ, এখন পর্যন্ত রাজ্য সরকারের কাছ থেকে সর্বাংশে সাহায্য পাচ্ছেন না তিনি।তবে দ্রুত ভিলেজ কাউন্সিলের নির্বাচন হলে তিনি বুঝবেন রাজ্য সরকার এডিসিকে সাহায্য করছে।কারণ ভিলেজ কাউন্সিল নির্বাচন না হলে অনেক ক্ষেত্রে এডিসিকে পিছিয়ে যেতে হবে।
ব্রু শরণার্থীদের পুনর্বাসন ইস্যুতেও কেন্দ্রীয় সরকারকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন প্রদ্যুত কিশোর।তিনি বলেন, রাজ্যে ব্রু শরণার্থীরা অত্যাচারিত।কোনো জায়গাতে ঝামেলা হলেই ব্রু শরণার্থীদের উপর নেমে আসে আক্রমণ। রাজ্য সরকারের কাছে প্রদ্যুত কিশোরের দাবি, ২৩-র বিধানসভা নির্বাচনে ব্রু শরণার্থীরা যেন রেশন কার্ড সহ ভোটাধিকার পায় তা ব্যবস্থা করতে।
প্রদ্যুত কিশোর বলেন,রাজধানীতে বিজেপি,কংগ্রেস, তৃণমূল লড়াই করছে।তাতে তাঁর কিছু আসে যায় না।কারণ তিপ্রামথা এডিসিতে ফোকাস করে জনজাতিদের জন্য কাজ করছে। এডিসির ছাত্রদের দেওয়া হচ্ছে স্কলারশিপ, তৈরি হচ্ছে হাসপাতাল।সর্বোপরি জনজাতিদের উন্নয়নে কাজ করছে বর্তমান এডিসি প্রশাসন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.