ডেস্ক রিপোর্টার,১৫মে।।
” প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের ফেলে যাওয়া উন্নয়ন মূলক কাজ সম্পন্ন করাই আমার প্রথম লক্ষ্য।”—বক্তা রাজ্যের নতুন মুখ্যমন্ত্রী ডা: মানিক সাহা। মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথ গ্রহণের পর সাংবাদিক বৈঠক করে রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে একথা বলেন তিনি।
“সমস্ত সরকারী সুযোগ-সুবিধা অন্তিম ব্যক্তি পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়ার জন্য বদ্ধ পরিকর সরকার।প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে তাঁর প্রদর্শিত পথেই কাজ করবেন তিনি।” একথা যোগ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী ডা:মানিক সাহা।
মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে বসে ডা:মানিক সাহা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রতি।তাছাড়া বিজেপি’র সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।সর্বোপরি রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে বলেন, ” বিপ্লব কুমার দেবের সঙ্গে আমার কেমেস্ট্রি খুব স্ট্রং”।
নতুন মুখ্যমন্ত্রী সটান বলেন,” দল যখন যে দায়িত্ব দিয়েছেন,তা তিনি পালন করেছেন।মুখ্যমন্ত্রীর গুরু দায়িত্বও তিনি যথাযথ ভাবেই পালন করবেন। ডা:মানিক সাহা জানিয়েছেন, আগামী কিছুদিনের মধ্যেই মন্ত্রিসভার রদবদল হতে পারে। মন্ত্রিসভায় আসবেন বেশ কয়েকজন নতুন মুখ।তবে গোটা প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে খুব দ্রুত।
রাজ্য মন্ত্রিসভার সদস্য রাম প্রসাদ পালের প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ” সব পরিবারের সমস্যা থাকে। এই সমস্যা নিজেরাই মিটমাট করে নেবো। গণতান্ত্রিক অধিকার সবাই রয়েছে।তবে প্রতিবাদের ভাষা বিভিন্ন জনের বিভিন্ন রকম হয়।”
শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে বিরোধীদের উপস্থিত না থাকার বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, তিনি নিজে ব্যক্তিগত ভাবে রবিবার সকালে ফোন করেছিলেন বিরোধী দল নেতা মানিক সরকারকে।কিন্তু মানিক সরকার জানিয়ে দেন,দলগত ভাবে শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বয়কট করেছে সিপিআইএম।তাই তিনি আসতে পারনেন না। রাজ্যের সন্ত্রাস ইস্যুকে সামনে রেখেই বিরোধীরা এই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান বয়কট করেছে? এই প্রশ্নের উত্তরে মুখ্যমন্ত্রীর জবাব, এটাই কিছুই নয়, প্রচারে থাকার জন্য বামেদের শুধু লাগে ইস্যু। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা যথেষ্ট ভালো। নেই কোনো সন্ত্রাস।

Leave a Reply

Your email address will not be published.