ডেস্ক রিপোর্টার,১৫ নভেম্বর।।
আগরতলা পুর নিগম ভোটকে পাখির চোখ করে রাজনীতির ময়দানে বিচরণ করছেন প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দলের প্রার্থীরা।সবাই লক্ষ্য “আগরতলার মসনদ”। প্রচারে প্রধান বিরোধী সিপিআইএম এবং সদ্য মাথা চাড়া দিয়ে উঠা তৃতীয় শক্তি তৃণমূল কংগ্রেস থেকে কয়েক যোজন এগিয়ে শাসক দল বিজেপি। বিজেপি’র প্রার্থীরা সাধারণ ভোটারদের কাছ থেকে পাচ্ছেন ব্যাপক সাড়া।বলছেন দলীয় নেতৃত্ব।
গেরুয়া শিবির স্পস্ট করে জানিয়ে দিয়েছে, নিগম নির্বাচনে বিপ্লব দেবের “অশ্বমেধের ঘোড়া” কেউ আটকাতে পারবে না।নানান ক্ষেত্রে রাজ্যের উন্নয়নের নিরিখে ভোটাররা বিজেপিকে ভোট দেবে। মানুষ প্রত্যাখ্যান করবে বিরোধী সিপিআইএমকে।বঙ্গ থেকে আসা তৃণমূল কংগ্রেস ভোটের বাজারে উড়ে যাবে খড়-কুটুর মতো।মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের নেতৃত্বে বিজেপি’র জয় কেউ আটকাতে পারবে না।
আগরতলা পুর ভোটে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার করতে বিজেপির ৫১জন প্রার্থী সর্বক্ষণ পৌঁছে যাচ্ছেন মানুষের কাছে। শাসক শিবিরের বক্তব্য অনুযায়ী, বিজেপির পক্ষে এবার নিগম ভোটে মেয়র পদ প্রার্থী হওয়ার দৌঁড়ের প্রধান মুখ দীপক মজুমদার ওরফে অলিক। তিনি আগরতলা শহরের পরিচিত রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।এক সময় তিনি আগরতলা পুর পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন।রাজনৈতিক অভিজ্ঞতায় তিনি অন্যদের থেকে অনেক এগিয়ে।রয়েছে জন প্রিয়তা।নিঃসন্দেহে মেয়র পদ প্রার্থী হওয়ার ক্ষেত্রে অলীক মজুমদার যোগ্য প্রার্থী। তিনি লড়বেন নিগমের ১৬নম্বর ওয়ার্ড থেকে। বিজেপি আগরতলা পুর নিগম দখলের পর অলীক মজুমদারই যে হচ্ছেন “মেয়র” এরকম নিশ্চিত আভাস পাওয়া যাচ্ছে বিজেপি’র অন্দর মহল থেকে।
প্রচারে পিছিয়ে নেই শাসক দলের অন্যান্য প্রার্থীরা।প্রত্যেকে নিয়ম করে পৌঁছে যাচ্ছেন ভোট দেবতাদের দুয়ারে দুয়ারে।ভোটারদের হাতে ধরিয়ে দিচ্ছেন তিলোত্তমা উন্নয়নের রিপোর্ট কার্ড। কথোপকথনে তুলে ধরছেন রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের অর্থাৎ ডাবল ইঞ্জিন সরকারের বিভিন্ন প্রকল্প।প্রার্থীরা নিশ্চিত ভাবে ভোটারদের কাছে থেকে পাচ্ছেন ভোট প্রাপ্তির প্রতিশ্রুতি। স্বাভাবিক ভাবেই প্রার্থীরা এখন মানসিক ভাবে যথেষ্ট চনমনে।তাদের মাথার উপর বসে থেকে সমস্ত রোডম্যাপ তৈরি করে দিচ্ছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব ও প্রদেশ বিজেপি’র সভাপতি ডা. মানিক সাহা। দলের অন্যান্য নেতা সহ সাধারণ কর্মী-সমর্থকরাও উজ্জীবিত।প্রতিদিন সকালে তারা প্রার্থীদের নিয়ে করছে ডোর টু ডোর।সন্ধ্যায় বুথের এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্তে করছে মিছিল।অর্থাৎ মানুষকে বিজেপি মুখে করে রাখতে কোনো ত্রুটি রাখছে না শাসক দল বিজেপি’র নেতা-কর্মী-সমর্থকরা। গেরুয়া শিবিরের বিশ্বাস নিগম ভোটে সিংহ-ভাগ আসন পারে তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.