ডেস্ক রিপোর্টার,১৭অক্টোবর।।
রাজ্যের কংগ্রেস রাজনীতিতে চলছে “সার্কাস”। এবার প্রদেশ কংগ্রেসের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছে ত্রিপুরা ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট(টিডিএফ)।
সম্প্রতি কংগ্রেস ছেড়ে বেরিয়ে যান প্রদেশ কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি পীযূষ বিস্বাস। যুব কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতি পূজন বিশ্বাস, কংগ্রেস নেতা তাপস দে।তারা কংগ্রেস থেকে বেরিয়ে গঠন করে ত্রিপুরা ডেমোক্র্যাটিক ফ্রন্ট।গত ৭অক্টোবর টিডিএফ’র আত্ম প্রকাশ ঘটে। দলের আত্ম প্রকাশের সময় বেশ কিছু কংগ্রেস নেতাও যোগ দিয়েছিলো টিডিএফে।কিন্তু নতুন দলের সঙ্গে সংসার পেতেও ভেঙে দেয়। বেশ কয়েকজন নেতা ফের ফিরে যায় কংগ্রেসে।টিডিএফের প্রতিষ্ঠাতা দুই সদস্য কংগ্রেসের প্রলোভন পেয়ে তারা চলে যায় বীরজিতের ঘরে। প্রদেশ কংগ্রেস টিডিএফের নেতাদের বসিয়ে দেয় জেলা কংগ্রেসের মাথায়। টিডিএফের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য অরূপ দেবকে বিলোনিয়া কংগ্রেসের সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়। একই ভাবে টিডিএফের আরেক প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মলিন চন্দ্র করকে উদয়পুর জেলা কংগ্রেসের মাথায় বসিয়ে দেন বীরজিৎ। প্রদেশ কংগ্রেস টিডিএফে ভাঙ্গন ধরিয়ে প্রমান করে শতাব্দীর প্রাচীন এই দলে মূল প্রতিদ্বন্দ্বী টিডিএফ।বাস্তব অর্থে এই রাজ্যে কংগ্রেসের নেতা পরিবর্তন হলেও কেউই দলকে সঠিক ভাবে উজ্জীবিত করতে পারছে না।বিগত দুই দশক ধরে রাজ্য কংগ্রেসের এই চিত্র দেখতে অভ্যস্ত সাধারণ মানুষ।
কংগ্রেসের এমন সময় এসেছে এখন তাদের “গুরুত্বে”র তালিকায় টিডিএফ। অথচ কংগ্রেসের মূল প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার কথা ছিলো বিজেপি,সিপিআইএম’র মতো দলগুলি।কিন্তু আজকের কংগ্রেস রাজ্য রাজনীতির সেই দৌড় থেকে শত যোজন পিছিয়ে গেছে কংগ্রেস।বলছেন রাজনীতিকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.