* শারদ সন্মাননা ১১টি ক্লাব ও পূজা কমিটিকে।

* ছয়টি সংবাদ সংস্থা ও ১২জন সাংবাদিককে সম্মাননা।

* কোভিড পরিস্থিতিতে সামাজিক কাজের অবদানের জন্য তিন সংস্থা ও এক ব্যক্তিকে সংবর্ধনা জ্ঞাপন।



ডেস্ক রিপোর্টার,১৮ ডিসেম্বর।।
এক আনন্দ ঘন অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হলো “নিবেদিতা ভলেন্টারি অর্গানাইজেশন” ও “জনতার মশাল”র শারদ সন্মান-২০২১ অনুষ্ঠান। শুক্রবার সন্ধ্যায় শারদ সন্মান অনুষ্ঠান কেন্দ্র করে আগরতলা রবীন্দ্র ভবনের দুই নম্বর হলে ছিলো চাঁদের হাট।যেন ম-ম করছিলো শারদ উৎসবের গন্ধে। প্রদীপ প্রজ্বলন করে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন রাজ্য বিধানসভার অধ্যক্ষ রতন চক্রবর্তী।সঙ্গে ছিলেন অন্যান্য অথিতিরা। এদিনের অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি রতন চক্রবর্তী ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক কৃষ্ণধন দাস, আগরতলা পুর নিগমের ডেপুটি মেয়র মনিকা দাস দত্ত, আগরতলা পুর নিগমের কর্পোরেটর সীমা দেবনাথ,ত্রিপুরা শিল্প নিগমের চেয়ারম্যান টিঙ্কু রায় ও রাজ্য খাদি বোর্ডের চেয়ারম্যান রাজীব ভট্টাচার্য,রাজ্য মহিলা কমিশনের ভাইস চেয়ারপার্সন অস্মিতা বণিক,সদস্যা ডালিয়া সিনহা, নিবেদিত ভলেন্টারি অর্গানাইজেশনের প্রধান উপদেষ্টা ও জনতার মশাল’র সম্পাদক অভিজিৎ ঘোষ।
অনুষ্ঠান উদ্বোধনের পর নৃত্য শিল্পীরা তাদের নৃত্য পরিবেশন করেন।এরপর অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ রাখেন “জনতার মশাল”র সম্পাদক অভিজিৎ ঘোষ।একে একে বক্তব্য রাখেন অন্যান্য অতিথিরাও।
“নিবেদিতা ভলেন্টারি অর্গানাইজেশন” ও “জনতার মশাল”র যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত শারদ সন্মান অনুষ্ঠানে রাজ্যের মোট ১১টি ক্লাব ও সংস্থাকে পুরস্কৃত করা হয়েছে। আগরতলার বাইরে বিশালগড় ও সোনামুড়ার ক্লাবগুলিও পেয়েছে পুরস্কার। প্রতিটি মণ্ডপের নানান বিষয় খতিয়ে দেখে “বিচারক মণ্ডলী”র বিচারে উৎরে যাওয়া ক্লাবগুলোকেই শারদ সন্মান দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো আয়োজকরা। কোভিড পরিস্থিতিতে সামাজিক কাজের অবদানের জন্য তিনটি সামাজিক সংস্থাকেও পুরস্কৃত করা হয়েছে শারদ সম্মান অনুষ্ঠান মঞ্চে। সন্মান জানানো হয়েছে এই রাজ্যের ছয়টি মিডিয়া হাউস ও ছয়জন সাংবাদিককে।তারা প্রত্যেকেই স্ব স্ব জায়গাতে সুনামের সঙ্গে সৃষ্টিশীল মনোভাব নিয়ে মানুষের দরজায় অবিরাম পৌঁছে দেন বিভিন্ন ঘটনার সংগৃহিত খবর। শারদ সন্মান মঞ্চে পুরস্কৃত করা হয়েছে সমাজসেবী বিপ্লব করকে।কোভিড পরিস্থিতি থেকে তিনি মাত্র ১টাকার বিনিময়ে ভাতের থালি তুলে দিচ্ছেন গরিব মানুষের হাতে।তাঁর এই উদ্যোগ ভূয়সী প্রশংসিত হয়েছে।
অনুষ্ঠান মঞ্চে বিভিন্ন ডান্স একাডেমীর পক্ষ থেকে আসা খোদে নৃত্য শিল্পীদের নৃত্য পরিবেশনা মন ছুঁয়ে যায় হলে উপস্থিত দর্শকদের। গোটা অনুষ্ঠান খুব সুন্দর ভাবে সঞ্চালনা করেন সঞ্চালক মৃনাল দেবনাথ।মঞ্চের দায়িত্বে ছিলেন নিবেদিতা ভলেন্টারি অর্গানাইজেশন”-র অফিস সেক্রেটারি অম্লান মুখার্জি ও সদস্য দৈপায়ন দাস।





Leave a Reply

Your email address will not be published.