ডেস্ক রিপোর্টার,২১মে।।
“রাজ্যের প্রথম মুখ্যমন্ত্রী শচীন সিং থেকে শুরু করে হালের মানিক সাহা, কেউই জন নেতা নন, প্রকৃত জননেতা রাজ্যের সদ্য প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।”—-বিপ্লব কুমার দেবকে দরাজ মনে এই শংসা পত্র দিলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ। শনিবার কমলপুর সফরে গিয়ে বিপ্লব কুমার দেব সম্পর্কের একথা বলেছেন রতন লাল নাথ।
শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ বলেন, “দেশ-বিদেশে বহু মানীষীরা জন্মেছেন।ত্রিপুরাতেও জন্মেছেন একজন। তিনি বিপ্লব কুমার দেব।রাজ্যের মানুষকে বিপ্লব কুমার দেব নতুন দিশা দেখিয়েছেন।দেখিয়েছেন নতুন স্বপ্ন।কিভাবে স্বপ্ন পূরণ করতে হয় তাও তিনি দেখিয়েছেন।বিপ্লব কুমার দেব ছিলেন একজন ব্যতিক্রমী মুখ্যমন্ত্রী। এর আগে কোনো মুখ্যমন্ত্রী রাজ্যের মানুষকে স্বপ্ন দেখতে পারেন নি।
রাজ্যের প্রাক্তন বিপ্লব কুমার দেবকে প্রকারন্তে মনীষীদের সঙ্গে তুলনা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ।এবং রাজ্য রাজনীতির একমাত্র “জননেতা” হিসাবে বিপ্লব কুমার দেবকে আখ্যায়িত করেছেন শিক্ষামন্ত্রী।

রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীর এই বক্তব্য নিয়ে শোরগোল শুরু হয় রাজ্য রাজনীতিতেও। তৃণমূল কংগ্রেস এই ইস্যুতে টুইট বার্তায় তীব্র আক্রমণ করে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীকে।তৃণমূলের দাবি, বিপ্লব কুমার দেবের ব্যর্থতাকে ধামাচাপা দেওয়ার ব্যর্থ চেষ্টা করছেন শিক্ষামন্ত্রী। ভারতের মনীষীদের সঙ্গে বিপ্লব দেবের নাম জড়িয়ে ফেলা অত্যন্ত দুর্ভাগ্য জনক। বিপ্লব দেবের পদত্যাগেই নাকি স্পষ্ট হচ্ছে ত্রিপুরায় বিজেপি সরকারের পতন।শিক্ষামন্ত্রীর এই বক্তব্যকে হাস্যকর বলে দাবি করেছেন সিপিআইএম নেতৃত্ব।এবং কংগ্রেস নেতৃত্ব শিক্ষা মন্ত্রীর এই বক্তব্যকে গুরুত্ব দিতেই নারাজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.