ডেস্ক রিপোর্টার, ২১সেপ্টেম্বর।।
      ” বিশেষ ব্যক্তি বা গোষ্ঠীর সঙ্গে সাংবাদিকদের দহরম মহরম  ভালো নয়। সাংবাদিকদের চরিত্র হওয়া উচিত কচু পাতাতে থাকা জলের মতো”। বক্তা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ডা: মনিক সাহা। বুধবার রাজধানীর রবীন্দ্র ভবনে অনুষ্ঠিত ত্রিপুরা নিউজ পেপার সোসাইটির প্রথম রাজ্য সম্মেলনে একথা বলেছেন তিনি।
       মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সংবাদ মাধ্যমেও শুরু হয়েছে গ্রুপবাজি। তৈরী হয়েছে ছোট ছোট গ্যাং। মিডিয়াতে তা কোনো ভাবেই কাম্য নয়। তাতে জন সন্মুখে মিডিয়ার ইমেজে ধাক্কা লাগে। মুখ্যমন্ত্রী ডা: মনিক সাহার বক্তব্য, সংবাদ মাধ্যম হচ্ছে সমাজের দর্পণ। সংবিধান আনুষ্ঠানিক ভাবে সংবাদ মাধ্যমকে চতুর্থ স্তম্ভ হিসাবে ঘোষণা না দিলেও আক্ষরিক অর্থে সংবাদ মাধ্যমই চতুর্থ স্তম্ভের ভূমিকা পালন করছে।
          ” মানুষ নিউজ দেখতে পছন্দ করে। ভিউজ নয়। কিন্তু আজকাল নিউজের পরিবর্তে সংবাদ মাধ্যমে ভিউজ হয়।” সংবাদ মাধ্যমের বর্তমান হাল -হকিকত নিয়ে বলতে গিয়ে একথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী ডা:মনিক সাহা। সংবাদ মাধ্যমের উদ্দেশ্য মুখ্যমন্ত্রী বলেন,সরকারের ভুল ত্রুটি তুলে ধরাই মিডিয়ার কাজ। তবে খবর বিকৃত না করে। সরকার বা মুখ্যমন্ত্রী কি কি ভালো কাজ করেছেন তাও মিডিয়ার তুলে ধরা উচিত। এটা কোনো ভাবেই গুণগান হবে না।


মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্য সরকার সংবাদ মাধ্যমের পাশে রয়েছে। এবং সংবাদ মাধ্যমের সমস্যা নিরসনের জন্য আন্তরিক। এছাড়া সাংবাদিক আক্রান্ত হওয়ার কোনো ঘটনা ঘটলে প্রশাসন আইন অনুযায়ী কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে এবং করবে।
          ত্রিপুরা নিউজ পেপার সোসাইটির সভাপতি সুবল কুমার দে’ও   বক্তব্য রাখেন। রাজ্যের সংবাদ মাধ্যমের আরো স্বাধীনতা দরকার বলে মনে করেন তিনি। এবং বন্ধ করে দেওয়া  টিভি চ্যানেলগুলিকে পুনরায় চালু করার জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন। এদিনের সন্মেলনে রাজ্যের আইনমন্ত্রী রতন লাল নাথ এবং তথ্যমন্ত্রী সুশান্ত চৌধুরী আমন্ত্রিত ছিলেন। কিন্তু তারা ব্যক্তিগত কারণে এদিনের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেন নি। এদিনের অনুষ্ঠানে প্রবীন সাংবাদিক স্রোত রঞ্জন খিসাকে সংবর্ধনা জানানো হয় সংগঠনের পক্ষ থেকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.