ডেস্ক রিপোর্টার,২২ জানুয়ারি।।

ত্রিপুরা রাজ্যের ইতিহাসে একটি মাইল স্টোন স্থাপন করল এজিএমসি অ্যাণ্ড জিবিপি হাসপাতালের চিকিৎসকরা। পূর্ণ রাজ্য দিবসের প্রাক লগ্নে গত ২০ জানুয়ারি এজিএমসি অ্যান্ড জিবিপি হাসপাতালের কার্ডিও থোরাসিক অ্যাগু ভাসকুলার সার্জারি অ্যান্ড ইন্টারভেনশনাল রেডিওলজি (সি টি ভি এস অ্যাও আইআর) ডিপার্টমেন্ট-এর চিকিৎসকরা সাফল্যের সঙ্গে প্রথমবার ওপেন হার্ট সার্জারি করেছেন। উদয়পুরের বাসিন্দা মাধবী রাণী দাসের (৪৬) শ্বাসকষ্ট ছিল। তার বুক ধড়ফড় করত ও বুকে ব্যাথা হত। গত মাসে হার্টের এই সমস্যাগুলি নিয়ে তিনি এজিএমসি অ্যাগু জিবিপি হাসপাতালের বহির্বিভাগে দেখান। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর চিকিৎসকরা তার হার্টে বেশ বড় ধরনের এটিয়াল ডিফেক্ট সনাক্ত করেন। তারপর এজিএমসি অ্যান্ড জিবিপি হাসপাতালের সি টি ভি এস অ্যাও আই আর ডিপার্টমেন্ট-এর কনসালটেন্ট অ্যান্ড ইনচার্জ কার্ডিয়াক সার্জন ডাঃ কনক নারায়ণ ভট্টাচার্যের নেতত্বে চিকিৎসকদের একটি টিম বৃহস্পতিবার এই সার্জারি করেন। সুদীর্ঘ পাঁচ ঘন্টা ব্যাপী এই জটিল অস্ত্রোপচার করা হয়। অ্যানেসথেসিওলজিস্ট ছিলেন ডাঃ সুরজিৎ পাল। সঙ্গে ছিলেন মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ অভিষেক দেববর্মা। পারফিউসানিস্ট (হার্ট-লাং যন্ত্র পরিচালক) সুজন সাহু, ফিজিসিয়ান অ্যাসিস্টেন্ট সুদীপ্ত মণ্ডল, স্ক্রাব নার্স জাহির হুসেন, অর্পিতা সরকার, সৌরভ শীল, মৌসুমী দেবনাথ, ওটি অ্যাসিস্ট্যন্ট রতন মণ্ডল, জয়দীপ চক্রবর্তী, অমৃত মুড়াসিং, কোর্ডিনেটর অভিষেক দত্ত,রিচাশ্রী সরকার, কিষাণ রায় ও অন্যান্য স্বাস্থ্যকর্মীরাও ছিলেন। বর্তমানে রোগী আইসিইউতে রয়েছে এবং তার অবস্থা স্থিতিশীল রয়েছে।
২০২০ সালের জুলাই মাসে সি টি ভি এস অ্যান্ড আই আর ডিপার্টমেন্ট চালু হবার পর জিবিপি হাসপাতালে এমন জটিল অস্ত্রোপচার এই প্রথম। আর এজন্য দীর্ঘ পরিকল্পনা ও প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়। উল্লেখ্য আয়ুষ্মান প্রকল্পের অন্তর্গত হওয়ায় এই অস্ত্রোপচার সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করা হয়েছে।
উল্লেখ্য এই সি টি ভি এস অ্যাগু আই আর ডিপার্টমেন্ট দ্রুত চালু করার ক্ষেত্রে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেন। শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে আগরতলা গভর্নমেন্ট মেডিক্যাল কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডাঃ মঞ্জুশ্রী রায়, জিবিপি হাসপাতালের মেডিক্যাল সুপারিনটেনডেন্ট ডাঃ সঞ্জীব দেববর্মা,ডেপুটি মেডিক্যাল সুপারিনটেনডেন্ট ডাঃ শংকর চক্রবর্তী এবং কার্ডিয়াক সার্জন ডাঃ কনক নারায়ণ ভট্টাচার্য এই অস্ত্রোপচার সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন। ডাঃ কনক নারায়ণ ভট্টাচার্য সি টি ভি এস অ্যাগু আই আর ডিপার্টমেন্ট চালুর ক্ষেত্রে আন্তরিক ও বলিষ্ঠ উদ্যোগ গ্রহণের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। পাশাপাশি সি টি ভি এস অ্যাণ্ড আই আর ডিপার্টমেন্টের উন্নতিতে আন্তরিক ভূমিকা গ্রহণের জন্য কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান প্রতিমা ভৌমিক, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ দপ্তরের প্রধান সচিব জে কে সিনহা, স্বাস্থ্য অধিকর্তা ও এক্স অফিসিও জয়েন্ট সেক্রেটারি ডাঃ শুভাশিস দেববর্মা, আগরতলা গভর্নমেন্ট মেডিক্যাল কলেজের প্রিন্সিপাল, জিবিপি হাসপাতালের সুপারিনটেনডেন্ট সহ প্রশাসনিক আধিকারিকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন। তাদের পাশাপাশি ব্লাড ব্যাংক আধিকারিক, ইলেকট্রিক সাব ডিভিশন, পূর্ত দপ্তরের কর্মীদের সহযোগিতার জন্য তাদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন আগরতলা গভর্নমেন্ট মেডিক্যাল কলেজের কার্ডিওলজিস্ট ডাঃ অনিন্দ্য সুন্দর ত্রিবেদী প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.