ডেস্ক রিপোর্টার,২২ জুলাই
প্রতিমা ভৌমিক।রাজ্য রাজনীতির এক উজ্জ্বল নক্ষত্র। তাঁর রাজনৈতিক গন্ডি এখন ছড়িয়ে পড়েছে সর্ব ভারতীয় স্তরে। তিনি গড়েছেন নয়া ইতিহাস। স্থান পেলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রিসভায়।রাজ্যের প্রথম মহিলা হিসাবে এই নজির গড়েছেন তিনি।শুধু তাই নয়, সামাজিক ন্যায়বিচার এবং ক্ষমতায়ন মন্ত্রকের প্রতি মন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়ে প্রতিমা ভৌমিক আরও একটি নজির স্থাপন করেছেন। ত্রিপুরার প্রথম স্থায়ী বাসিন্দা হিসাবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় স্থান পেয়েছেন তিনি।এর আগে রাজ্যের আরো দুই সাংসদ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় স্থান পেয়েছিলেন। তাদের একজন ত্রিগুনা সেন ও অপর জন সন্তোষ মোহন দেব।ত্রিগুনা সেন ছিলেন পশ্চিম বঙ্গের বাসিন্দা এবং সন্তোষ মোহন দেব ছিলেন অসমের শিলচরে বাসিন্দা। প্রতিমা ভৌমিকের এই সাফল্যের জন্য রাজ্য মন্ত্রিসভা বৃহস্পতিবার ধন্যবাদ জানিয়েছে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে।রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে শেষে একথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী রতনলাল নাথ।
এক প্রেস বিবৃতিতে রাজ্য মন্ত্রিসভা দাবি করে প্রতিমা ভৌমিককে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় স্থান দেওয়ার মধ্য দিয়ে উত্তর পূর্বাঞ্চলের প্রতি ভারত সরকারের উদার মানসিকতা স্পস্ট হয়েছে।এবং ভারত সরকারের ‘পূর্বে সক্রিয় হও’ নীতি বাস্তবায়িত হয়েছে।
ভারত সরকারের অধীনে নতুন করে সমবায় মন্ত্রক চালু হওয়াতে রাজ্য মন্ত্রিসভা ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে।রাজ্য মন্ত্রিসভা মনে করে ভারত সরকারের এই উদ্যোগ দেশে সমবায়ের ভিত্তি ও অগ্রগতির ক্ষেত্রে নতুন দিশা দেখাবে।এবং গ্রামীন অর্থনীতি বিকাশেও বড় ভূমিকা নেবে সমবায় মন্ত্রক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.