ডেস্ক রিপোর্টার,২৩জুন।।
ভোট দিতে গিয়ে দুস্কৃতির ধারালো অস্ত্রের আঘাতে রক্তাক্ত হলেন এক পুলিশ কর্মী।ঘটনা বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর আগরতলা বিধানসভা কেন্দ্রের অভয়নগরে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় আহত পুলিশকর্মীর চিকিৎসা চলছে জিবি হাসপাতাল। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংশ্লিষ্ট অঞ্চলে বাড়ছে রাজনৈতিক উত্তেজনা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান পুলিশের পদস্থ আধিকারিকরা। তবে এখন পর্যন্ত দুষ্কৃতীদের নেই কোনো গ্রেফতারের খবর।
আহত পুলিশ কর্মী জানিয়েছেন, এদিন সকালে নিয়ম মেনেই তিনি তার গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করার জন্য ভোটকেন্দ্রের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হন। সঙ্গে ছিলেন তার স্ত্রীও। ভোটকেন্দ্রের সামনে যাওয়ার পরেই দুষ্কৃতীরা তার পথ অবরোধ করে। এবং তাকে ভোটদান না করে বাড়ি ফেরার জন্য নির্দেশ দেয়। তখন পুলিশকর্মী তাদের পাত্তা না দিয়ে বলেন,” আমি ভোট দিতে এসেছি, গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করেই বাড়িতে ফিরে যাব।” পুলিসকর্মীর এই বক্তব্য শুনে তেলে বেগুনে জ্বলে উঠে দুষ্কৃতীরা। সঙ্গে সঙ্গে তাদের পকেটে থাকা ধারালো অস্ত্র বের করে তার পেটে আঘাত করে। ঘটনাস্থলেই রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়েন পুলিশ কর্মী।সঙ্গে থাকা তার স্ত্রীর আত্মচিৎকারে উপস্থিত লোকজন ছুটে আসে। খবর পেয়ে অকুস্থলে ছুটে আসে পুলিশ। কিন্তু সবার চোখের সামনে দিয়েই পুলিশকর্মীর হামলাকারীরা বুক ফুলিয়ে চলে যায় তাদের নিরাপদ স্থানে। উপস্থিত লোকজন সঙ্গে সঙ্গে রক্তাক্ত অবস্থায় পুলিশকর্মীকে নিয়ে আসে জিবি হাসপাতালে। চিকিৎসকরা তাকে ভর্তি করিয়ে দিয়ে জরুরি অবস্থায় শুরু করেন চিকিৎসা। আহত পুলিশকর্মীর স্ত্রী জানিয়েছেন, তার স্বামী সিপিআইএমের প্রাক্তন বিধায়ক ললিত মোহন ত্রিপুরার দেহরক্ষী। আক্রান্ত পুলিশ কর্মীর অভিযোগ, বিজেপির দুষ্কৃতীরাই তাকে হামলা করেছে।তিনি চিনতে পেরেছেন হামলাকারীদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.