বালুছড়ায় হাতির আক্রমণে বিপর্যস্ত ঘর।

তেলিয়ামুড়া ডেস্ক, ২৩জুলাই।।
                বন্য দাঁতাল হাতির উন্মুক্ত তাণ্ডবে অতিষ্ঠ জনজীবন। ক্ষতিগ্রস্ত মানুষজনদের বক্তব্য, তাদের পাশে নেই বনদপ্তর। বারবার দপ্তরকে জানিয়েও বনদপ্তরের অকর্মণ্যতার ফলে হাতির আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষজনেরা বর্তমানে বঞ্চিত সরকারি সাহায্যটুকু থেকেও। ঘটনা তেলিয়ামুড়া মহকুমা বনদপ্তরের অধীন বালুছড়া সহ আরো বেশ কয়েকটি এলাকায়।
         ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামবাসীদের বক্তব্য, শুক্রবার গভীর রাতে জঙ্গল থেকে বন্য দাঁতাল হাতির দল বেরিয়ে এসে বালুছড়া এলাকায় উন্মুক্ত তাণ্ডব চালায়। ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয় এলাকার বেশ কয়েকটি বাড়িঘর, নষ্ট করে দেয় ঘরে মজুত থাকা ধান সহ বিভিন্ন জিনিসপত্র। কিন্তু হাতির আক্রমণের খবর বারবার ফোন যোগে বন দপ্তরকে জানিও বন দপ্তরের তরফ থেকে কোন সাহায্য পৌঁছায়নি সংশ্লিষ্ট এলাকার মানুষ। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, হাতির আক্রমণের ঘটনা ঘটে যাওয়ার প্রায় ১২ ঘন্টা অতিক্রান্ত হয়ে গেলেও তেলিয়ামুড়া মহকুমা বন দপ্তরের তরফে কোন সাহায্য পৌঁছায়নি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলির কাছে।
                আমজনতার প্রশ্ন , তেলিয়ামুড়া মহকুমা আধিকারিক সাবির কান্তি দাসের তত্ত্বাবধানে হাতি তাড়ানোর নামে লক্ষ লক্ষ সরকারি টাকার কেন আদ্য শ্রাদ্ধ হচ্ছে?তাহলে কি হাতি সমস্যা দূরীকরণের নামে যে লক্ষ লক্ষ সরকারি টাকা ব্যয় করা হয়েছে, তার কোন সুফল পাবে স্থানীয় লোকজন? টাকার ব্যয় তো মানুষের স্বার্থেই!

ফটো সেশনে এসডিএফও সাবির কান্তি দাস।

এলাকার ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের রোষের মুখে এসডিএফও সাবির কান্তি দাস।ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের অভিযোগ,”মহকুমা বন আধিকারিক সাবিরকান্তি দাস হাতির সমস্যা দূরীকরণের নামে নিজের পকেট ভারি করছেন।”
হাতির আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের এক সদস্য জানান, বর্তমানে বন্য দাতাল হাতি তাদের রাতের ঘুম কেড়ে নিয়েছে। একাধিকবার তেলিয়ামুড়া বন দপ্তরকে জানিয়েও কাজ কিছুই হচ্ছে না। এলাকায় বহুবার বন্য দাঁতাল হাতির আক্রমণ সংঘটিত হয়েছে। সাহায্যের জন্য বন দপ্তরকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দিয়েও কপালে জুটেনি কিছুই। উল্টো বনদপ্তরের তরফে জানানো হয়,” জঙ্গলের পাশে বাড়ি ঘর থাকলে হাতির আক্রমণ হবেই। এ ব্যাপারে কোন সাহায্য করতে পারবে না দপ্তর।”
হাতির আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলি চাইছে সরকারি সাহায্য। এখন এটাই দেখার বিষয় কবে নাগাদ খোয়াই জেলার ডিএফও এবং তেলিয়ামুড়ার এসডিএফও’র ঘুম ভাঙ্গে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.