ডেস্ক রিপোর্টার,২৪ আগস্ট।।

রাখি বন্ধন উৎসব কেন্দ্র করেও বাড়ছে রাজ্য রাজনীতির উত্তেজনার পারদ। শাসক দল বিজেপি ও বিরোধী তৃণমূল কংগ্রেস রাখি বন্ধন উৎসবে টেক্কা দিচ্ছে একে অপরকে।দুই রাজনৈতিক দল এই রাখি বন্ধন উৎসবকে “রাজনীতির উৎসবে” পরিণত করে দিয়েছে।
রাজনীতির এই রাখি উৎসবে সবাইকে চমকে দিয়েছেন বিজেপির বিক্ষোব্ধ বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন। তিনি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে চলে এসেছেন একই সারিতে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতোই সুদীপ রায় বর্মনের ছবি সাটানো রাখি বিক্রি হচ্ছে রাজ্যের দোকানে দোকানে।শহর থেকে গ্রাম সব জায়গাতেই। কৈলাশহরের রাখি বিক্রেয়া প্রবীর পাল জানিয়েছেন,”তিনি আগরতলায় পাইকারী এক রাখির দোকানে সুদীপ রায় বর্মনের ছবি লাগানো রাখি দেখতে পান। তিনি সঙ্গে সঙ্গে এই রাখি কিনে নিয়ে আসেন তার দোকানে। ব্যবসায়ী প্রবীর পালের বক্তব্য, “অন্যান্য রাখির তুলনায় সুদীপ রায় বর্মনের ছবি লাগলো রাখির চাহিদা বেশি। ক্রেতাদের নব্বই শতাংশ যুবক-যুবতী।”
রাজধানী আগরতলা সহ রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে সুদীপ রায় বর্মনের ছবি লাগানো রাখি বিক্রি হচ্ছে। আমবাসার ব্যবসায়ী সঞ্জু দেব জানিয়েছেন, তিনি দোকানে তুলেছেন সুদীপ রায় বর্মনের ছবি লাগানো রাখি।এই রাখির চাহিদা বেশ ভালো।”
রাজধানীর কৃষ্ণনগর এলাকার সুমন দেববর্মার দোকানেও খুঁজে পাওয়া গেলো সুদীপ রায় বর্মনের ছবি সহ রাখি।তার বক্তব্য, “এবছর অন্যান্য রাখির তুলনায় সুদীপ রায় বর্মনের ছবির চাহিদা বেশি। যুবকদেরই এই রাখি বেশি পছন্দ।”
রাজনীতিকরা বলছেন,এর আগে রাজ্যের কোনো রাজনৈতিক ব্যক্তি বা সেলিব্রেটিদের ছবি দিয়ে রাখি তৈরি করে বাজারে বিক্রি হয় নি।এই সংস্কৃতি বাংলায় থাকলেও ত্রিপুরায় প্রথম।এবার বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মনের ছবি দিয়ে বানানো রাখি পাওয়া যাচ্ছে অলি-গলির দোকানে।এতে অবশ্যই জনপ্রিয়তাও কিছুটা মাপা যায়।তবে যদি অন্য কোনো রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের ছবি সাটানো রাখি পাওয়া যেত,তাহলে অবশ্যই জনপ্রিয়তা মাপকাঠি সঠিক ভাবে নির্ধারণ করা যেত। রাজনীতিকরা বলেন,রাজ্যের অন্য কোনো রাজনীতিকের ছবি দিয়ে রাখি না থাকলেও,এটা স্পষ্ট যুব সমাজের কাছে একটা ক্রেজ রয়েছে শাসক দলের বিক্ষোব্ধ বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মনের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.