তিপ্রা মথার মঞ্চে হংস কুমার।

ডেস্ক রিপোর্টার, আগরতলা।।
প্রত্যাশিত ভাবেই পাহাড় রাজনীতিতে মাস্টার স্ট্রোক দিলেন তিপ্রামথার সুপ্রিমো প্রদ্যুৎ কিশোর। প্রদ্যুতের পাশাগুটির চালে এডিসিতে ভাজপা শিবিরে ধরলো ভাঙন।বিজেপি ছেড়ে তিপ্রামথাতে যোগ দিয়েছেন এডিসির বিরোধী দলনেতা হংস কুমার ত্রিপুরা। ধলাইয়ের ছাওমনুর মানিকপুরে অনুষ্ঠিত জনসভা়য় হংস কুমার ত্রিপুরার হাতে মথার পতাকা তুলে দিলেন দলের চেয়ারম্যান প্রদ্যুৎ কিশোর দেববর্মন এবং তাকে উপযুক্ত সম্মান দিয়ে দলে বরণ করে নেন। শুধু তাই নয়, হংস কুমার ত্রিপুরা তার প্রায়ই ৬০০০ অনুগামীকে বিজেপি’র তাবু থেকে মথার তাবুতে নিয়ে আসেন। “এডিসির বিরোধী দলনেতা তথা বিজেপি নেতা হংসকমার ত্রিপুরা যোগ দিচ্ছেন তিপ্রামথাতে”।গত ২২আগষ্ট”জনতার মশাল” সর্ব প্রথম(এক্সক্লুসিভ) এই খবর প্রকাশিত করেছিলো। শেষ পর্যন্ত মঙ্গলবার হংস কুমার ত্রিপুরা তিপ্রামথাতে যোগ দেওয়াতে “জনতার মশাল” ফের সত্যের দৃষ্টান্ত স্থাপন করে।

সমর্থকদের মাঝে মথার সুপ্রিম প্রদ্যুৎ।

মঙ্গলবার মানিকপুরে তিপ্রামথার ঐতিহাসিক জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।এই জনসভার আকর্ষণের মূল কেন্দ্র বিন্দু ছিলেন তিপ্রামথা চেয়ারম্যান প্রদ্যুৎ কিশোর দেববর্মন ও হংস কুমার ত্রিপুরা। এদিন হংস কুমার ত্রিপুরা সদর্পে বিজেপি ছাড়া ঘোষণা দেন। হংস বলেন, “তিপ্রামথার গ্রেটার তিপ্রাল্যান্ডের আন্দোলনকে তিনি সমর্থন করছেন। এই লড়াই তিপ্রাসাদের জন্য। একমাত্র তিপ্রামথা তিপ্রাসাদের স্বার্থের জন্য লড়াই করছে। এই কারণেই বিজেপিতে বড় পদে থাকা সত্ত্বেও তিনি গেরুয়া শিবির ত্যাগ করে যোগ দিয়েছেন মথায়”।

প্রদ্যুতের সঙ্গে মাথার মিছিলে হাঁটলেন হংস।

রাজনীতিকদের বক্তব্য,এডিসির বিরোধী দলনেতা হংস কুমার ত্রিপুরা তিপ্রামথাতে যোগ দেওয়াতে পাহাড় রাজনীতিতে কিছুটা হলেও পিছিয়ে গিয়েছে গেরুয়া বাহিনী। ভিলেজ ভোটের প্রাকলগ্নে প্রদ্যুৎ কিশোরের এই মাস্টার স্ট্রোক নিঃসন্দেহে পাহাড় রাজনীতির জন্য তাৎপর্যপূর্ণ। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার রাজ্য সফরের আগে গেরুয়া শিবিরে মথার এই আঘাত বিজেপির জন্য অশনি সংকেত বলেই মনে করছেন সংশ্লিষ্ট মহল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.