ডেস্ক রিপোর্টার,২৪মে।।
“জাতিগত আবেগকে কাজে লাগিয়ে এডিসি নির্বাচনে ক্ষমতায় এসেছিলো তিপ্রামথা।মথার রাজত্বে পাহাড়ের অবস্থা খুব খারাপ। এডিসি এলাকার স্বাস্থ্য ব্যবস্থা,শিক্ষা ব্যবস্থা, বিদ্যুৎ ব্যবস্থা সব ভেঙে পড়েছে।এক কথায় পাহাড় অভিভাবকহীন” রাজ্যের পাহাড় নিয়ে এই প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করলেন সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক জিতেন্দ্র চৌধুরী।মঙ্গলবার সিপিআইএম রাজ্য সদর দপ্তরে সাংবাদিক সম্মেলন করে একথা বলেন তিনি।
জিতেন্দ্র চৌধুরী তথ্য তুলে ধরে বলেন, এডিসি এলাকায় শিক্ষার অবস্থা বেহাল।১৪৭টি স্কুল চলছে মাত্র ১জন করে শিক্ষক দিয়ে। অর্থাৎ প্রতি স্কুলে একজন শিক্ষক শিক্ষা দান করেছেন ছাত্র-ছাত্রীদের।স্বাভাবিক ভাবেই ভেঙে পড়েছে পাহাড়ের শিক্ষা ব্যবস্থার। হাসপাতালগুলিতে ওষুধ নেই।মানুষের নেই কর্মসংস্থান।এই পরিস্থিতিতে গ্রেটার তিপ্রাল্যান্ডের সুড়সুড়ি দিয়ে রাজনীতি করছে মথার নেতৃত্ব।
জিতেন্দ্র চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, রাজ্যের শাসক দল বিজেপি’র সঙ্গে এডিসির শাসক দল তিপ্রামথার সাদৃশ্য রয়েছে।বিজেপি সমতলে বিরোধীদের সঙ্গে যা করছে, পাহাড়ে একই কাজ করছে তিপ্রামথা। বিরোধীরা পাহাড়ে কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি করতে পারছে না। বারবার মথার লোকজন আক্রমণ করছে সিপিআইএম নেতা-কর্মী-সমর্থকদের।সবদিক দিয়েই পাহাড়ে চলছে এক অরাজকতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.