ডেস্ক রিপোর্টার,২৬সেপ্টেম্বর।।
আগামী ২রা অক্টোবর জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর জন্ম জয়ন্তী। এদিন জল জীবন মিশনকে গোটা দেশে আন্দোলনে পরিণত করতে দেশের প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েতে সভা আয়োজনের নির্দেশ নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।
দেশের প্রত্যেক গ্রামের প্রতিটি বাড়ি, স্কুল,অঙ্গনওয়ারি সেন্টার, আশ্রম পিএইচসি,সিএইচসি কমিউনিটি সেন্টারগুলিতে পরিশ্রুত পানীয় জলের ব্যবস্থা আছে কিনা, তা খতিয়ে দেখতেই মূলত প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েতে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। মহাত্মা গান্ধীর জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষ্যে রাজ্যের গ্রামে এই কর্মসূচি পালিত হবে। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই খবর নিশ্চিত করা হয়েছে।

সম্প্রতি দেশের জল-শক্তি মন্ত্রনালয়ের সচিব পঙ্কজ কুমার প্রতিটি রাজ্যের মুখ্য সচিবকে এই সংক্রান্ত বিষয়ে চিঠি দিয়েছেন। পঙ্কজ কুমার চিঠিতে লিখেছেন, “এবছর স্বাধীনতা দিবসে গোটা দেশ আজাদী কা অমৃত মহোৎসব উদযাপন করছে। এবার জল জীবন মিশন প্রকল্পে দেশের প্রতিটি রাজ্যের প্রত্যেক গ্রাম পঞ্চায়েতে বৈঠক করার প্রস্তাব দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।”
জল জীবন মিশন প্রকল্পের বৈঠক সম্পর্কে রাজ্যের পূর্ত দপ্তরের সচিব জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী রাজ্যের প্রত্যেকটি গ্রাম পঞ্চায়েতে সভা অনুষ্ঠিত হবে।সভাগুলিতে আলোচনা হবে গ্রামের পানীয় জলের ব্যবস্থা নিয়ে। আগামী ২রা অক্টোবর সকাল ১০থেকে ১২ মধ্যে রাজ্যের প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েতে বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। গ্রাম পঞ্চায়েতের সভা থেকে ভার্চুয়ালি প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও যোগাযোগ করা হবে।ভার্চুয়ালি বৈঠক পরখ করবেন প্রধানমন্ত্রী।
পূর্ত দপ্তরের সচিব জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী, গ্রামের জল ও
স্যানিটেশন কমিটিকে বলা হয়েছে,আগামী ২রা অক্টোবরের বৈঠকে পঞ্চাশ শতাংশ মহিলাকে উপস্থিত রাখার জন্য। সমাজের পিছিয়ে থাকা শ্রেণীর লোকজনের প্রতিনিধি রাখার বার্তা দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সচিবের বক্তব্য,প্রকল্পের মূল লক্ষ্য ২০২৪সালের মধ্যে প্রতিটি গ্রামীন পরিবারে পরিশ্রুত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.