ডেস্ক রিপোর্টার,২৭জানুয়ারি।।
ফের বিস্ফোরক বিজেপি’র দুই বিক্ষুব্ধ বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন ও আশীষ সাহা। উদয়পুর ও সোনামুড়া সফরে গিয়ে দুই বিধায়ক কার্যত তুলোধুনো করলেন নিজেদের দল বিজেপি’র শীর্ষ নেতৃত্বকে।বৃহস্পতিবার জেলা সফরে গিয়ে শাসক দলের দুই সংস্কারপন্থী দুই বিধায়কদের করা মন্তব্যে ফের সাইক্লোন শুরু হয়ে গিয়েছে পদ্ম শিবিরে। বলছেন রাজনীতিকরা।তবে প্রদেশ বিজেপি নেতৃত্বের দাবি, দুই সংস্কারপন্থী বিধায়কের বক্তব্যকে গুরুত্ব দিতে নারাজ দলের থিঙ্কট্যাঙ্ক।
বিজেপি’র বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন সম্প্রতি ঘোষণা দিয়েছিলেন,”তিনি ২৩-র বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি’র টিকিটে লড়বেন না”। এই বক্তব্যের মাধ্যমে সুদীপ রায় বর্মন তাঁর রাজনৈতিক স্ট্যান্ড পয়েন্ট পরিষ্কার করে দিয়েছেন। এরপর থেকে বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন প্রায় প্রতিদিন প্রদেশ বিজেপি’র নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিষ ঝড়াচ্ছেন। কিন্তু সুদীপের বিরুদ্ধে পাল্টা কোনো প্রতিক্রিয়া দেন নি বিজেপি নেতৃত্ব।
সুদীপ রায় বর্মন ও তাঁর রাজনৈতিক ছায়াসঙ্গী বিধায়ক আশীষ সাহা নিয়মিত গোটা রাজ্য পরিক্রমা করছেন।তারা চক্কর কাটছেন এক জেলা থেকে অপর জেলায়। বিজেপি’র দুই সংস্কারপন্থী বিধায়ক প্রত্যেক জায়গাতে গিয়েই তাদের পুরানো রাজনৈতিক সহকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। ধর্মনগর থেকে সাব্রুম প্রত্যেক জায়গাতেই বিচরণ করছেন তারা।
বৃহস্পতিবার সুদীপ-আশীষ উদয়পুর ও সোনামুড়াতে সফর করেন। প্রথমে তারা যান উদয়পুরে।পরে যান সোনামুড়াতে।এদিন সুদীপ-আশীষের সঙ্গে দেখা গিয়েছে আরেক সংস্কারপন্থী বিধায়ক বুর্বমোহন ত্রিপুরাকে। দুই জায়গাতেই বিজেপি’র বিক্ষুব্ধ বিধায়করা তাদের দীর্ঘ দিনের পুরানো রাজনৈতিক সহকর্মীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। কোভিড বিধি মেনে উভয় স্থানেই সহকর্মীদের সঙ্গে করেন বৈঠক। কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে দুই বিধায়ক খোঁজ নেন সংশ্লিষ্ট অঞ্চলের রাজনৈতিক পরিস্থিতির কথা।
এদিন উদয়পুর সফরে গিয়ে ফের প্রদেশ বিজেপি নেতৃত্বকে তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেন বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন।সুদীপ বলেন,” যারা ১৮-র পরিবর্তনের কান্ডারী তারাই আজ দিশেহারা। আছেন দম বন্ধকর অবস্থায়। গুন্ডা বাহিনীর সদস্যরা হরণ করছে মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার। ভয়ে মানুষ হারিয়ে ফেলছে প্রতিবাদের ভাষা”। বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মনের কথায়, ” রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি আলোচনা করতেই তারা জেলা সফরে বেড়িয়েছেন।এই প্রেক্ষাপটে কি করা উচিত তা নিয়েই আলোচনা করেন সহকর্মীদের সঙ্গে।”
সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন স্পস্ট ভাবেই বলেন, তিনি বিজেপি’র আর লড়বেন না।তবে তাঁর পরবর্তী রাজনৈতিক পদক্ষেপ দেখার জন্য আরো কিছুটা দিন অপেক্ষা করতে হবে।তারপরই আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা করবেন তিনি।
উদয়পুরে সুদীপের সফর সঙ্গী বিজেপি’র অপর বিধায়ক আশীষ সাহাও আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে আক্রমণ করেন বিজেপি নেতৃত্বকে। আশীষ সাহা বলেন,”এই রাজ্যে দলই(বিজেপি) নেই।তাহলে কিভাবে হবে দল বিরোধী কার্যকলাপ?”।
“যারা ১৮-তে পরিবর্তনে মুখ্য ভূমিকা নিয়েছিলো,আজ সেই সকল কর্মীরা আক্রান্ত।তাদের উপর চলছে হামলা। তাহলে আজ আমরা কোথায়?” প্রশ্ন বিধায়ক আশীষ সাহার। প্রদেশ বিজেপি’র সংস্কারপন্থী বিধায়ক আশীষ সাহা সুর চড়িয়ে বলছেন, ” কেউ যদি আমাদের কার্যকলাপকে দল বিরোধী বলে আখ্যা দেয়, তাতে কিছু আসে যায় না।”
আগামীদিনে রাজ্যের মানুষকে নিয়ে এগিয়ে যাবো আমরা। মানুষ আছে আমাদের পাশে।শেষ কথা বলবে মানুষই।—-এই ভাষাতেই সংস্কারপন্থী বিধায়ক আশীষ সাহা তাদের পাশে মানুষ থাকার বার্তা দিয়ে কাঠগড়ায় তুলেন শাসক দল বিজেপিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.