ডেস্ক রিপোর্টার,২৮ জুলাই:
রাজ্যে করোনার বিশেষ টিকা দান প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে রাজনীতির পাশা গুটির চাল দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব।তাতে তিনি যথেষ্ট সফল বলা চলে।
দুইদিনের টিকাকরণ অভিযানের মধ্য দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বুঝিয়ে দিয়েছেন বিজেপির রাজনীতিতে তিনি পুরোপুরি “ব্যতিক্রমী”।এই ভ্যাকসিন প্রক্রিয়াকে সমর্থন জানিয়েছেন বিজেপির সিংহ ভাগ বিধায়ক ও নেতা।তারা মুখ্যমন্ত্রীর ডাকে সাড়া দিয়ে ভ্যাকসিন প্রক্রিয়াকে সফল করতে এগিয়ে এসেছেন।করেছেন প্রচার। মুখ্যমন্ত্রীর এই উদ্যোগে দলের অধিকাংশ বিধায়করা সামিল হয়ে বুঝিয়ে দিলেন তারা বিপ্লব দেবের পাশে আছেন।এবং থাকবেন।
বিজেপির অন্দর মহলের খবর,শুধুমাত্র “বাগি” বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মন সহ হাতে গুনা তার কয়েকজন অনুগামী বিধায়ক ভ্যাকসিনের প্রচার থেকে বিরত থাকেন।তাতে অবশ্যই স্পস্ট হয়ে যায়,দলে সুদীপ রায় বর্মনের অবস্থান।তিনি যে কোণঠাসা তা বলার অপেক্ষা রাখে না।কারণ সিংহ ভাগ বিধায়ক ভ্যাকসিনের প্রচারে এগিয়ে এসেছেন।এবং তারা আস্থা রেখেছে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর উপর।
রাজনীতিকরা বলছেন,গত কয়েকদিন ধরে রাজ্য জুড়ে গালগপ্প শুরু করে দিয়েছিলো মুখ্যমন্ত্রী বিরোধী শিবির।তারা বলাবলি করছিলো বিপ্লব কুমার দেবকে তাঁর কুর্সি থেকে সরিয়ে দেওয়া হবে।বহিঃ রাজ্যের একটি টিভি চ্যানেলেও এই সংক্রান্ত খবর সম্প্রচার করা হয়েছিলো।এই সময় মুখ্যমন্ত্রী দিল্লিতে বৈঠক করছিলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে।গোটা খবর ছিলো ভিত্তিহীন। সোশ্যাল মিডিয়ায় তো প্রায় প্রতিদিন জিগির উঠছে মুখ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব থেকে সরানো হচ্ছে বিপ্লব কুমার দেবকে।বাস্তব অর্থে মুখ্যমন্ত্রীর জনপ্রিয়তা সহ্য করতে পারছেন না কয়েকজন স্ব-দলীয় বিধায়ক।এই জন্যই মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বদনাম ছড়ানোর চেষ্টা করছে তারা।কিন্তু ভ্যাকসিন প্রক্রিয়া থেকে স্পস্ট হয়ে গেছে দলের বড় অংশের বিধায়ক বিপ্লব কুমার দেবের পাশে।
বিজেপির এক বিধায়ক জানিয়েছেন, “রাজ্যের উন্নয়নের জন্য হৃদয় দিয়ে কাজ করছেন মুখ্যমন্ত্রী।একমাত্র বিপ্লব কুমার দেবই রাজ্য এবং রাজ্যের উৎপাদিত পণ্যগুলি জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্মে পৌঁছে দিয়েছেন।প্রতিদিন তিনি ভাবেন কিভাবে রাজ্যকে আরো এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.